সরকারি বন্ধ ছাড়া পরীক্ষার মধ্যে বিরতি থাকবে : শিক্ষামন্ত্রী

সরকারি বন্ধ ছাড়া পরীক্ষার মধ্যে বিরতি থাকবে না বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। আজ বুধবার এইচএসসিতে প্রশ্ন ফাঁসের তদন্ত প্রতিবেদনের বিষয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, দেড় মাস ধরে পরীক্ষা নেয়া আর সম্ভব না। আমরা পাঁচ দিনে পরীক্ষা দিয়েছি। অবশ্যই পরীক্ষা পদ্ধতি বদলাতে হবে। পরীক্ষার মধ্যে বন্ধ ছাড়া অন্য কোনো গ্যাপ থাকবে না। ক্লাসরুমে পড়াশোনা করে শিক্ষার্থীদের প্রস্তুত করতে হবে।

নাহিদ বলেন, পরীক্ষায় অবশ্যই পরিবর্তন আনব। আগের মতো আর পরীক্ষা হবে না। তদন্ত প্রতিবেদনের সাজেশন আমরা গ্রহণ করব। তবে পরীক্ষা পদ্ধতিতে কতটুকু পরিবর্তন আনতে পারব এ বিষয়ে সংশ্লিষ্টদের মতামত গ্রহণ করব। তদন্ত কমিটি প্রতিবেদনে যেসব সুপারিশ দিয়েছে সে বিষয়গুলোও সংবাদ সম্মেলনে বিস্তারিতভাবে তুলে ধরেন শিক্ষামন্ত্রী।

চলতি বছর উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় ইংরেজি দ্বিতীয়পত্র ও গণিত দ্বিতীয়পত্রের প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়েছে বলে স্বীকার করেছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।

মন্ত্রী বলেন, প্রতি বছর এইচএসসিতে ৫৫টি বিষয়ে ১১০টি প্রশ্নপত্র ছাপানো হয়। তার মধ্যে কয়েকটি প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগ উঠে। এ বিষয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের গঠন করা সাত সদস্যের তদন্ত কমিটি ২৯ জুন তাদের প্রতিবেদন সরকারের হাতে জমা দিয়েছে। এতে ২টি বিষয়ে প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়েছে বলে প্রমাণ মিলেছে।

প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগ ওঠার পর গত ৯ এপ্রিল ঢাকা বোর্ডের এইচএসসির ইংরেজি দ্বিতীয় পত্রের পরীক্ষা স্থগিত করা হয়।

পরদিন সোহরাব হোসাইনকে প্রধান করে সাত সদস্যের তদন্ত কমিটি করে এদের ১৫ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। পরে এই কমিটি কয়েক দফা সময় বাড়িয়ে নেয়।

এই কমিটিকে প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগের সার্বিক বিষয় তদন্ত করে এ বিষয়ে করণীয় নির্ধারণ এবং শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন সব পাবলিক পরীক্ষার প্রশ্নের নিরাপত্তা নিশ্চিতে সুনির্দিষ্ট সুপারিশ দিতে বলা হয়েছিল।

You Might Also Like