৯ মিনিট পেন্টাগনকে আতঙ্কে রেখেছিলেন ট্রাম্প

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে নিয়ে বুধবার বেশ উদ্বেগে ছিলেন পেন্টাগনের কর্মকর্তারা। ট্রাম্পের একটি টুইটের কারণে প্রায় দশ মিনিট পর্যন্ত উদ্বিগ্ন কর্মকর্তারা ভাবছিলেন ট্রাম্প হয়তো উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করতে যাচ্ছেন। তবে শেষ পর্যন্ত ট্রাম্প তার দ্বিতীয় টুইটে জানালেন, মার্কিন সামরিক বাহিনীতে তৃতীয় লিঙ্গের ব্যক্তিদের কোনো ঠাঁই নাই।

ট্রাম্প তার প্রথম টুইটে লিখেছিলেন, আমার জেনারেল ও সামরিক বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে আলোচনার পর দয়া করে উপদেশ দেয়া হলো যুক্তরাষ্ট্র সরকার মানবে না … । প্রথম এই টুইটই উদ্বেগে ফেলে দেয় পেন্টাগনের কর্মকর্তাদের।

মার্কিন সংবাদমাধ্যম বাজফিড লিখেছে ‘তিনটি টুইটের প্রথমটির কারণে পেন্টগনে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে যে প্রেসিডেন্ট হয়তো উত্তর কোরিয়ার ওপর হামলা অথবা কোনো সামরিক পদক্ষেপ নিতে যাচ্ছেন। অনেকেই বলছিলেন, প্রথম ও দ্বিতীয় টুইটের মধ্যে যে ৯ মিনিটের বিরতি ছিল ওই সময় তারা বেশ উদ্বেগের মধ্যে ছিলেন। কেবলমাত্র দ্বিতীয় টুইটের পর পেন্টাগন জানতে পারে প্রেসিডেন্ট সামরিক বাহিনীর নিয়োগে পরিবর্তন আনছেন।’

পত্রিকাটি জানিয়েছে, প্রতিরক্ষামন্ত্রী জেমস মাত্তিস চলতি সপ্তাহে ছুটিতে রয়েছেন। সামরিক বাহিনীতে নিয়োগনীতির এই পরিবর্তনের কথা তিনি জানতেন। তবে তিনি এর অনুমোদন দিয়েছেন কি না তা পরিষ্কার নয়।

You Might Also Like