হামলা হলে প্রতিশোধ নেয়া হবে : হামাস

ফিলিস্তিনের ইসলামী প্রতিরোধ আন্দোলন হামাস কঠোর হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছে, ইসরাইলি তিন কিশোরের মৃত্যুকে কেন্দ্র করে কোনো হামলা হলে তার দাঁতভাঙ্গা প্রতিশোধ নেয়া হবে।

হামাসের মুখপাত্র সামি আবু জুহরি বলেছেন, ফিলিস্তিনের দখলদার শক্তি যদি পরিস্থিতির আরো অবনতি ঘটায় বা যুদ্ধ শুরু করে তবে তার দাঁতাভাঙ্গা প্রতিশোধ নেয়া হবে। তিনি বলেন, “ইহুদিবাদী প্রধানমন্ত্রী বেনইয়ামিন নেতানিয়াহু’র জানা উচিত যে, কোনো হুমকিতে ভয় পায় না হামাস। তারপরও তারা যদি গাজা উপত্যকার বিরুদ্ধে যুদ্ধে নামে তবে নিজেদের জন্য জাহান্নামের দরজা খুলে দেবে।”

তিন ইসরাইলি কিশোরের নিখোঁজ ও হত্যার বিষয়ে তিনি বলেন, ইহুদিবাদী ইসরাইলিদের মুখ থেকেই কেবল এমন কথা শোনা যাচ্ছে। তেলআবিব এ কাহিনীকে অজুহাত হিসেবে ব্যবহার করে ফিলিস্তিনি ও হামাসের বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করতে চাইছে।

গত ১২ জুন পশ্চিম তীরের আল-খলিল শহর থেকে ইসরাইলে অভিবাসী তিন তরুণ-কিশোর নিখোঁজ হয়। এ ঘটনায় গাজার সঙ্গে ইসরাইলের কারেম শালোম সীমান্ত বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

আল-খলিল(হেব্রন)-এর কাছে ইসরাইলি তিন কিশোরের মৃতদেহ পাওয়া গেছে। এ তিন জনের কথিত নিখোঁজ হওয়ার ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগ এর আগে পরিষ্কার ভাষায় অস্বীকার করেছে হামাস। ফিলিস্তিনের এই ইসলামী প্রতিরোধ আন্দোলন বলেছে, হামাস ও ফাতাহ যে সংহতি চুক্তি করেছে তা নষ্ট করতে চাইছে ইহুদিবাদী ইসরাইল। এ চুক্তির ভিত্তিতেই ফিলিস্তিনের সংহতি সরকার গঠিত হয়েছে।

You Might Also Like