দ্বিতীয় দিনের মতো আল-আকসা মসজিদ বন্ধ রেখেছে ইসরায়েল

দ্বিতীয় দিনের মতো আল-আকসা মসজিদ বন্ধ করে রেখেছে ইসরায়েল।

এ ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছে ফিলিস্তিনি-ইসরায়েলিসহ বিশ্ব মুসলিম উম্মাহ। শুক্রবার মুসল্লিদের জুমার নামাজ আদায় করতে দেওয়া হয়নি।

শুক্রবার আল-আকসা মসজিদ প্রাঙ্গণের পাশে গুলিতে পাঁচজন নিহত হওয়ার ঘটনায় প্রবেশপথে তালা ঝুঁলিয়ে দেয় ইসরায়েলি পুলিশ।

মসজিদের খাদেম শেখ একরিমা সাবরি বলেছেন, ‘আজান দেওয়া ও নামাজ আদায় বন্ধ করে রেখেছে ইসরায়েলি সরকার এবং অন্য খাদেমদের মসজিদে ঢুকতে দেয়নি।’ তিনি আরো বলেন, ‘এসব পদক্ষেপ অপ্রত্যাশিত এবং ১৯৬৭ সালে ইসরায়েল জেরুজালেম অধিগ্রহণ করার পর এমনটি দেখা যায়নি।’

পূর্ব জেরুজালেমে পবিত্র মসজিদ প্রাঙ্গণের পাশে শুক্রবার গুলিতে তিন ফিলিস্তিনি ও দুই ইসরায়েলি পুলিশ নিহত হন। এ ঘটনার পর মসজিদ বন্ধ করে দেয় ইসরায়েলি কর্তৃপক্ষ। জুমার নামাজও আদায় করতে দেওয়া হয়নি মুসল্লিদের- এ ধরনের ঘটনা গত প্রায় পাঁচ দশকে প্রথম।

গুলিতে প্রাণহানির পর শুক্রবার কয়েক শত সেনা মোতায়েন করা হয় ওই এলাকায়। ইসরায়েলের ওল্ড সিটিতে কাউকে ঢুকতে দেওয়া হয়নি।

এদিকে, মসজিদ বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্তের নিন্দা জানিয়েছেন মুসলিম নেতারা। মসজিদ খুলে দিয়ে নামাজ আদায়ের ব্যবস্থা করে দিতে ইসরায়েলের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তারা। ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু পরিস্থিতি স্বাভাবিক হবে বলে আশ্বাস দিয়েছেন।

You Might Also Like