বিশুদ্ধ পানির সুবিধায় ৮৭% জনগণ

স্থানীয় সরকার এবং পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, বর্তমানে বাংলাদেশে ৮৭ শতাংশ জনগণ বিশুদ্ধ পানির সুবিধা আওতাভুক্ত। ১৩ শতাংশ জনগণ দূরবর্তী অন্যান্য নিরাপদ পানির উৎস থেকে খাবার পানি সংগ্রহ হয়ে থাকে। বর্তমান সরকার সবার জন্য সুপেয় পানির ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করেছে।

মঙ্গলবার সংসদে মৌলভীবাজার-২ আসনের সংসদ সদস্য মো. আব্দুল মতিনের এক প্রশ্নের জবাবে স্থানীয় সরকার এবং পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন এসব তথ্য জানান।

মোশাররফ হোসেন বলেন, বর্তমান সরকার সবার জন্য সুপেয় পানির ব্যবস্থা নিশ্চিত করার জন্য অঙ্গীকারবদ্ধ। এ লক্ষ্যে স্থানীয় সরকার বিভাগের আওতাধীন জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, প্রায় ১৬০০ কোটি ব্যয়ে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর দেশের প্রত্যন্ত এলাকায় চারটি গ্রামীণ পানি সরবরাহ প্রকল্প বাস্তবায়ন করেছে। এ প্রকল্পসমূহের আওতায় প্রায় এক লাখ পানির উৎস স্থাপন করা হবে। ইতিমধ্যে ২০১৬-১৭ অর্থবছরে সারাদেশে প্রায় ৪৫ হাজার নিরাপদ পানির উৎস স্থাপন করা হয়েছে।

তিনি বলেন, সুপেয় পানি ও কৃষিকাজে ভূগর্ভস্থ পানির উপরে অধিকহারে নির্ভশীলতার কারণে ভূগর্ভস্থ পানির স্তর তিন মিটার থেকে ১০ মিটার নিচে নেমে গেছে। এ অবস্থা উত্তরণের জন্য সরকার ৩৭৫ কোটি টাকা ব্যয়ে পানি সংরক্ষণ ও নিরাপদ পানি সরবরাহের লক্ষ্যে জেলা পরিষদের পুকুর/দিঘি/জলাশয়সমূহ পুনঃখনন/সংস্কার শীর্ষক প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। এ প্রকল্পের আওতায় ১৪৩টি পুকুর পুনঃখনন ও ২০০টি পুকুর নতুন করে খনন করা হবে। এছাড়া ২৯ জেলার ১১০টি উপজেলার এক হাজার ২২৪টি ইউনিয়নে আর্সেনিকমুক্ত নিরাপদ পানি নিশ্চিত করতে এক হাজার ৮৬৫ কোটি ৪ লাখ ৬১ হাজার টাকা ব্যয়ে প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে।

এর আগে বিকেল ৫টা ১৮ মিনিটে স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অধিবেশন শুরু হয়।

You Might Also Like