ঢাকায় ‘স্পাইডার-ম্যান’

মার্ভেল কমিকসের সবচেয়ে জনপ্রিয় চরিত্র বা সুপারহিরোর কথা বলতে গেলে, যে নামটি বেশি শোনা যায়- তা হলো স্পাইডার-ম্যান। এবার মুক্তি পেতে যাচ্ছে এ সিরিজের ১৬তম কিস্তি ‘স্পাইডার-ম্যান: হোমকামিং’। ৭ জুলাই যুক্তরাষ্ট্রসহ বিশ্বের অন্যান্য দেশের সঙ্গে বাংলাদেশেও মুক্তি পাবে সিনেমাটি। বাংলাদেশের দর্শকরা সিনেমাটি ঢাকার স্টার সিনেপ্লেক্সে দেখতে পাবেন। সিনেমাটি পরিচালনা করেছেন জন ওয়াটস।

তবে এবার অ্যান্ড্রু গারফিল্ড নন। নতুন স্পাইডি ব্রিটিশ অভিনেতা টম হল্যান্ড। এখানেই শেষ নয়, আরো চমক রয়েছে। এ সিনেমায় স্পাইডির সঙ্গে হাজির ‘আয়রন-ম্যান’ রবার্ট ডাউনি জুনিয়রও। এছাড়াও সিনেমাটিতে আরো অভিনয় করেছেন-মাইকেল কিটন, ডোনাল্ড গ্লোভারসহ অনেকে।

সিনেমার গল্পে- পিটার পার্কার হাই-স্কুলের ছাত্র। ১৫ বছরের পিটার সবে মাকড়সার কামড় খেয়ে স্পাইডার-ম্যান হয়ে উঠছেন। তার সেই কিশোর বয়সের গল্পই দেখা যাবে। আর প্রতিবারের মতো এবারো স্পাইডির গার্লফ্রেন্ড ক্লাসমেট মিশেল। মিশেল চরিত্রে অভিনয় করেছেন মার্কিন অভিনেত্রী জেনডায়া। পিটার পার্কারকে বেগ দিতে হাজির ভিলেন ‘ভালচার’। ‘বার্ডম্যান’ এর পর মাইকেল কিটন এবার ভালচার হয়ে স্পাইডারম্যানকে বেজায় বেগ দিয়েছেন।

অ্যাভেঞ্চারদের সঙ্গে পরিচিত হওয়ার পর বাড়ি ফিরে আসে পিটার। নিজের নতুন সুপারহিরো পরিচয় নিয়ে দোটানায় থাকা পিটার তার নতুন গুরু টোনি স্টার্কের নজরদারিতে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসার চেষ্টা করতে থাকেন। ঠিক তখনই পৃথিবীকে ধ্বংস করতে মাথা চাড়া দিয়ে ওঠে ভয়ঙ্কর ভালচার। কাছের মানুষগুলোকে কঠিন এক বাস্তবতার হাত থেকে বাঁচাতে আয়রন-ম্যান টোনি স্টার্কের সঙ্গে পৃথিবী রক্ষার লড়াইয়ে নামে স্পাইডার-ম্যান। সাসপেন্স আর দুর্দান্ত অ্যাকশনে ভরপুর এ সিনেমাটি দর্শকদের মন জয় করার পাশাপাশি বক্স অফিস সাফল্যে রেকর্ড গড়বে বলবে জানিয়েছেন নির্মাতারা।

You Might Also Like