আমার কোনো স্মার্টফোন নেই: ইসি প্রেসিডেন্ট

প্রযুক্তির এই বিশ্বে স্মার্টফোন এখন দৈনন্দিন জীবনের এক অপরিহার্য বস্তুতে পরিণত হয়েছে। সামর্থ্য থাকা সত্ত্বেও এই যুগে স্মার্টফোন ব্যবহার করেন না এমন ব্যক্তির সংখ্যা অতি নগণ্য।
স্মার্টফোন ব্যবহার করেন না এমন ব্যক্তির তালিকায় নাম এসেছে ইউরোপিয়ান কমিশন প্রেসিডেন্ট জাঁ ক্লদ জাকার-এর। সম্প্রতি এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে তিনি স্বীকার করেছেন এখন পর্যন্ত কোনো স্মার্টফোন নেই তার, বলা হয়েছে বিবিসি-এর প্রতিবেদনে।

“আমার বলা উচিত নয়, কিন্তু আমাকে বলতে হচ্ছে যে এখন পর্যন্ত আমার কোনো স্মার্টফোন নেই,” বলেন ৬২ বছর বয়সী ইসি প্রেসিডেন্ট।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জাকার মজা করে বলেন, “প্রধান মন্ত্রী জুরি রাটাস তাকে টালিন-এ দাওয়াত দিতে ঊনিশ শতকের মতো পোস্টকার্ড পাঠিয়েছেন।”

ইইউ-এর এক সূত্র জানিয়েছে, টেলিফোন করার ক্ষেত্রে জাকারের পছন্দ একটি পুরানো নোকিয়া মোবাইল।

এর আগে লুক্সেমবার্গ-এর প্রধান মন্ত্রী ছিলেন জাকার।

এবার তিনি বলেন, “এ ধরনের প্রযুক্তিগত স্বভাবের কারণেই তিনি এস্টোনিয়া’র প্রধান মন্ত্রী হতে পারবেন না, এটি হবে একেবারেই অসম্ভব।”

বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় ডিজিটাল দেশগুলোর একটি ধরা হয় এস্টোনিয়া-কে। এ দেশেই প্রথম অনলাইন ভোটিং ব্যবস্থা চালু হয়। শনিবার থেকে ছয় মাস পর্যন্ত ইইউ প্রেসিডেন্ট হিসেবে তার কাছে ডিজিটাল প্রযুক্তির সমস্যা এবং ব্রেক্সিট প্রভাবের বিষয়গুলো তুলে ধরার প্রয়াশ করছে দেশটি।

মার্কিন টেক জায়ান্ট তাদের প্রথম আইফোন আনার ১০ বছর পর স্মার্টফোন ব্যবহার না করার কথা স্বীকার করলেন জাকার। তবে এই তালিকায় তিনি একা নন। অনেক উচ্চপদস্থ ব্যক্তিই রয়েছেন যারা স্মার্টফোন ব্যবহার করেন না।

২০০৫ সাল থেকে জার্মানির নেতৃত্ব দিয়ে আসা চ্যান্সেলর এঙ্গেলা মের্কেল-এর এখন পর্যন্ত কোনো টুইটার অ্যাকাউন্ট নেই বলেও প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

You Might Also Like