‘কাতারের মতো ১০ দেশে খাদ্য সরবরাহ করতে পারে ইরান’

ইরান বলেছে, দেশটি কাতারের বর্তমান মোট চাহিদার সব খাবার সরবরাহ করার ক্ষমতা রাখে। ইরানের সরকারি বাণিজ্য সংস্থার উপপ্রধান আব্বাস মারুফান এ ঘোষণা দিয়ে বলেছেন, কাতারের মতো ১০টি দেশে যুগপৎভাবে খাদ্যদ্রব্য সরবরাহ করতে প্রস্তুত রয়েছে ইরান।

তিনি আরো বলেন, কাতারের কাছ থেকে অনুরোধ পেলে দেশটিতে খাদ্য সরবরাহ শুরু করবে তেহরান।

চলতি মাসের গোড়ার দিকে সৌদি আরব, বাহরাইন, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও মিশর কাতারের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবাদে সমর্থন দেয়ার অভিযোগ তুলে দোহার সঙ্গে সব ধরনের সম্পর্ক ছিন্ন করে। সেইসঙ্গে দেশটির ওপর স্থল, নৌ ও আকাশপথে কঠোর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে পারস্য উপসাগরীয় আরব দেশগুলো।

আরব দেশগুলোর ওই পদক্ষেপের পরপরই ইরান কাতারে খাদ্যদ্রব্যবাহী কার্গো বিমান পাঠায়। গত সপ্তাহে ইরানি কর্মকর্তারা জানিয়েছিলেন, তেহরান দোহায় পাঁচটি কার্গো বিমান পাঠিয়েছেন যার প্রত্যেকটিতে রয়েছে ১০০ টন করে খাদ্যদ্রব্য।

এ ছাড়া, ইরানি কর্মকর্তারা বুধবার জানান, দেশটি ১৮০ টন ফল ও সবজি নিয়ে একটি জাহাজ কাতারে পাঠিয়েছে।

এদিকে কাতারে দুগ্ধজাত পণ্য রপ্তানির জন্য দোহার সঙ্গে তেহরানের আলোচনা চলছে বলে কোনো কোনো সূত্র জানিয়েছে। ইরানি কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে এসব সূত্র জানিয়েছে, দেশটি কাতারে অন্তত ৪৫ টন দুগ্ধজাত পণ্য রপ্তানির জন্য প্রস্তুত রয়েছে।

কাতার খাদ্যপণ্যে এতটাই পরনির্ভরশীল যে, একদিন এই পণ্য আমদানি না করলে দেশটিতে খাদ্য ঘাটতি দেয়।এ কারণে চার আরব দেশ দোহার সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করার পরপরই কাতারের সুপার মার্কেটগুলোতে খাদ্যদ্রব্য কেনার হিড়িক পড়ে যায়।

You Might Also Like