৬৪ কোটি টাকার চোরাচালান ও মাদকদ্রব্য জব্দ

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) গত ফেব্রুয়ারি মাসে দেশের সীমান্ত এলাকাসহ অন্যান্য স্থানে অভিযান চালিয়ে ৬৪ কোটি ২৪ লাখ ৯১ হাজার ২৪৫ টাকার চোরাচালান ও মাদকদ্রব্য জব্দ করেছে।

 

বিজিবির জনসংযোগ কর্মকর্তা মুহম্মদ মোহসিন রেজা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

 

তিনি জানান, অন্তর্মূখী চোরাচালানের আর্থিক মূল্য ৫৯ কোটি ৪ লাখ ৩৬ হাজার ৬৮৫ টাকা ও বহির্মূখী চোরাচালানের মূল্য ৫ কোটি ২০ লাখ ৫৪ হাজার ৫৬০ টাকা।

 

আটককৃত মাদকের মধ্যে ৪০ হাজার ৩৮১ বোতল ফেনসিডিল, ৬ লাখ ১৪ হাজার ৩১৫টি ইয়াবা ট্যাবলেট, ১ লাখ ২ হাজার ৪১১টি উত্তেজক ট্যাবলেট, ২৩ হাজার ২৭০ বোতল বিদেশি মদ, ১ হাজর ৯৬ লিটার স্থানীয় মদ, ১ হাজার ৬৯ ক্যান বিয়ার, ৫৮১ কেজি গাঁজা, ২ কেজি ৫৪৫ গ্রাম হেরোইন, ২ হাজার ৯৮৬ টি নেশাজাতীয় ইনজেকশন ও ২ লাখ ৮৮ হাজার ৮১৯টি বিভিন্ন প্রকারের ট্যাবলেট।

 

উদ্ধারকৃত অস্ত্রের মধ্যে ৮টি পিস্তল, ৬টি বন্দুক, ৪টি ম্যাগাজিন, ৩টি ককটেল ও ৩৬ রাউন্ড গুলি।

 

সীমান্তে অবৈধ পারাপার ও চোরাচালানে জড়িত থাকার অভিযোগে ২১০ জনকে আটক করে নিকটস্থ থানায় সোপর্দ করা হয়েছে ও ২ হাজার ৩৫৮টি চোরাচালান মামলা দায়ের করা হয়েছে।

 

অবৈধভাবে সীমান্ত অতিক্রমের সময় ১ হাজার ৩৩০ জনকে আটক করা হয়। তাদের মধ্যে ৭৪ জন বাংলাদেশিকে আটক করে থানায় সোপর্দ, ভারতীয় ১০ জনের মধ্যে ৯ জনকে স্বদেশে ফেরত ও ১ জনকে থানায় সোপর্দ ও মিয়ানমারের ১ হাজার ২১৬ জন নাগরিককে আটক করে স্বদেশে ফেরত পাঠানো হয়েছে।

 

উল্লিখিত সময়ে ৩০ জন নারী-শিশুকে উদ্ধার করা হয়, যার মধ্যে ২৩ জন নারী ও ৭ জন শিশু রয়েছে ও এ সংক্রান্ত ১০টি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

You Might Also Like