৩ দিন পর আবার মেয়রের চেয়ারে মান্নান

বাংলাদেশের গাজীপুর সিটি করপোরেশনের প্রথম নির্বাচিত মেয়র এম এ মান্নান সাময়িক বরখাস্ত হওয়ার তিন দিন পর পুনরায় আদালতের নির্দেশে মেয়রের চেয়ারে বসেছেন। আজ (সোমবার) দুপুরে এম এ মান্নান কাউন্সিলর ও দলীয় নেতা-কর্মীদের নিয়ে নগর ভবনে গিয়ে নিজ দপ্তরের চেয়ারে বসেন।

মেয়র তার নিজ দফতরে আজ এক প্রতিক্রিয়ায় সাংবাদিকদের বলেন, আইনি লড়াইয়ে বিজয়ী হয়ে ফের মেয়রের দায়িত্ব পালন করতে এসেছি। যেহেতু সিটি নির্বাচনের এক বছরেরও কম সময় রয়েছে সেহেতু রাস্তাঘাট, পানি নিষ্কাশনসহ অতি জরুরি কাজগুলো দ্রুত সম্পাদন করা হবে।
গাজীপুর সিটি মেয়র এম এ মান্নান ২০১৩ সালে প্রথম মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পর গত চার বছরে তিনবার বরখাস্ত এবং ২২ মাস করাভোগ করেছেন। দায়িত্ব পালনের সুযোগ পেয়েছেন মাত্র ১৮ মাস ১৯ দিন। তার বিরুদ্ধে ৩০টি মামলা আছে।
গাজীপুরের মেয়র অধ্যাপক অবদুল মান্নান ছাড়াও এরকম যাদেরকে একাধিকবার ”সাময়িক বরখাস্ত” করা হয়েছেন তাদের মধ্যে রয়েছেন সিলেট ও রাজশাহীর মেয়র, হবিগঞ্জ পৌরসভার মেয়র, চট্টগ্রামের সাতকানিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানসহ দেশের বিভিন্ন সিটি করপোরেশন, পৌরসভা ও উপজেলা পরিষদের নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিরা।
প্রাপ্ত তথ্যানুযায়ী, গত দুই বছরে প্রায় ৩৫০ জনপ্রতিনিধিকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। তাঁদের মধ্যে বেশির ভাগই বিরোধী রাজনৈতিক দলের মনোনয়নে নির্বাচিত হয়েছেন।
নির্বাচিত মেয়র বা কোনো কাউন্সিলরকে “সাময়িক বরখাস্ত” করার আইন অসাংবিধানিক উল্লেখ করে তা বাতিলের জন্য এরইমধ্যে হাইকোর্টে রিট আবেদন করেছেন রাজশাহীর মেয়র মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল।
হাইকোর্ট গত বছর ১০ মার্চ এক রায়ে আইনের সংশ্লিষ্ট ধারা সংশোধন করতে জাতীয় সংসদ ও সরকারকে নির্দেশ দেন।
এ রায়ের বিরুদ্ধে আপিল বিভাগে আপিল করে সরকার। আপিলের ওপর শুনানি শেষে গত ৫ মার্চ রায় দেন আপিল বিভাগ। রায়ে আদালত আইন সংশোধনের বিষয়ে হাইকোর্টের নির্দেশের অংশ সংশোধন করেন।
আপিল বিভাগের রায়ে বলা হয়, আইন সংশোধনে হাইকোর্টের ওই নির্দেশনা আদালতের প্রত্যাশামূলক। আশা করি সরকার ও জাতীয় সংসদ আইন সংশোধনের বিষয়টি সুবিবেচনায় নেবে।

You Might Also Like