২ মার্চের মধ্যে জামায়াত নিষিদ্ধের আইনের খসড়া মন্ত্রিসভায়

মুক্তিযুদ্ধকালীন মানবতাবিরোধী অপরাধের সঙ্গে জড়িত সংগঠন জামায়াতের নিষিদ্ধের বিধান রেখে সংশোধিত আন্তর্জাতিক যুদ্ধাপরাধ আইনের খসড়া আগামী ২ মার্চের মধ্যে মন্ত্রিসভা বৈঠকে উঠছে বলে জানিয়েছেন আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়কমন্ত্রী আনিসুল হক।

বুধবার সচিবালয়ে নিজ দফতরে মুক্তিযুদ্ধকালীন মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় জামায়াত নেতা আবদুস সুবহানের ফাঁসির রায়ের প্রতিক্রিয়া জানানোর সময় তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, জামায়াতে ইসলামীর মুক্তিযুদ্ধকালে মানবতাবিরোধী অপরাধের সঙ্গে সংশ্লিষ্টতা রয়েছে। এজন্য এ সংগঠনের নেতৃবৃন্দরা বিচারের মুখোমুখি হচ্ছেন।

এর আগেও আইনমন্ত্রী একাধিকবার সংশোধিত আইনের খসড়াটি মন্ত্রিসভা বৈঠকে উঠছে বলে জানিয়েছিলেন। কিন্তু ঘোষিত সময় অনুযায়ী খসড়াটি মন্ত্রিসভা বৈঠকে অনুমোদনের জন্য ওঠেনি। প্রতি সোমবার সচিবালয়ে মন্ত্রিসভা বৈঠক বসে। প্রধানমন্ত্রী এতে সভাপতিত্ব করেন।

খসড়া আইনটি মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে আছে জানিয়ে আইনমন্ত্রী বলেন, ‘আমার মনে হয় আগামী সোমবারের (২৩ ফেব্রুয়ারি) মন্ত্রিসভা বৈঠকে না উঠলে এর পরের বৈঠকে (২ মার্চ) আইনের খসড়াটি উঠবে।’

গত বছরের ৫ আগস্ট সচিবালয়ে যুদ্ধপরাধ বিষয়ক মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের বিশেষ দূত স্টিফেন জে র‌্যাপের সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে আইনমন্ত্রী সাংবাদিকদের জানিয়েছিলেন, আইনের খসড়াটি শিগগিরই মন্ত্রিসভা বৈঠকে অনুমোদনের জন্য উঠছে।

এর পরের মাসে আইনমন্ত্রী বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছিলেন, ওই মাসের (সেপ্টেম্বর) মধ্যেই আন্তর্জাতিক অপরাধ (ট্রাইব্যুনালস) আইনের খসড়া মন্ত্রিসভা বৈঠকে উঠছে।

You Might Also Like