‘২০৩০ সালের মধ্যে দারিদ্র্যের হার ১৫ শতাংশ বাড়বে’

বাংলাদেশ বৈশ্বিক জলবায়ুর অন্যতম ঝুঁকিপূর্ণ দেশ। এর প্রভাবে ২০৩০ সালের মধ্যে দারিদ্র্যের হার আরো ১৫ শতাংশ বাড়বে বলে প্রতিবেদন পেশ করেছে টিআইবি। পাশাপাশি সমুদ্রস্ফীতি জনিত লবণাক্ততা এবং তাপমাত্রা বৃদ্ধির কারণে ২০৫০ সালের মধ্যে  ধান ও গমের উৎপাদন ৪০ শতাংশ কমে যাবে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়েছে এ প্রতিবেদনে।

বুধবার সকালে রাজধানীর ব্র্যাক ইন সেন্টারে টিআইবি আয়োজিত ‘বাংলাদেশে জলবায়ু অর্থায়নে সুশাসন : প্রাতিষ্ঠানিক ও প্রায়োগিক অগ্রগতি, চ্যালেঞ্জ ও সম্ভাবনা’ শীর্ষক এক প্রতিবেদনে এ তথ্য তুলে ধরা হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, বৈশ্বিক জলবায়ু ঝুঁকি সূচক ২০১৩ অনুযায়ী, আগামী ২০ বছরে জলবায়ু পরিবর্তনের সবচেয়ে ঝুঁকিতে রয়েছে বাংলাদেশ। ২৮ সে. মি. সমুদ্রস্ফীতি হলে এবং পলি গঠন সে অনুপাতে না হলে সুন্দরবনে বাঘের বিচরণ ৯৬ শতাংশ কমে যাবে। এছাড়া সামগ্রিকভাবে ২০৩০ সালের মধ্যে দারিদ্র্যের হার আরও ১৫ শতাংশ বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়েছে ।

টিআইবি’র নির্বাহী পরিচালক ড.ইফতেখারুজ্জামানের পরিচালনায় আলোচনা সভায় উপস্থিত রয়েছেন বন ও পরিবেশ মন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জু, টিআইবি’র ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান এডভোকেট সুলতানা কামাল ও উপ-নির্বাহী পরিচালক ড.সুমাইয়া খায়ের।

You Might Also Like