১৬ ডিসেম্বর থেকে সিম নিবন্ধন শুরু

বায়োমেট্রিক্স পদ্ধতিতে পরীক্ষামূলক মোবাইল সিমকার্ড নিবন্ধনের সময় যে ছোটখাটো ত্রুটিগুলো হয়েছিল, তা দূর করা হয়েছে। আগামী ১৬ ডিসেম্বর থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে এ কার্যক্রম শুরু করা হবে।

আঙুলের ছাপ বা বায়োমেট্রিক্স পদ্ধতিতে মোবাইল সিমকার্ড নিবন্ধন শুরুর আগে প্রস্তুতি সম্পর্কে জানতে চাইলে রবিবার টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলেন, কিছু ‘মিস ম্যাচিং’ ছিল- সেগুলো আমরা দেখেছি। জাতীয় পরিচয়পত্র তথ্য ভাণ্ডারের (এনআইডি) নম্বরের সঙ্গে চারবার গ্রাহকের আঙুলের ছাপ নিয়ে ছোটখাটো সমস্যাগুলো সমাধান করা হয়েছে।

জাতীয় এবং ব্যক্তিগত নিরাপত্তার স্বার্থে ১৬ ডিসেম্বর থেকে গ্রাহকের আঙুলের ছাপ গ্রহণ এবং জাতীয় পরিচয়পত্রের ভিত্তিতে আনুষ্ঠানিকভাবে দেশব্যাপী মোবাইল সংযোগ নিবন্ধন প্রক্রিয়া চালু হচ্ছে।

তিনি বলেন, নতুন সংযোগ কেনার ক্ষেত্রে জাতীয় পরিচয়পত্রসহ সংশ্লিষ্ট মোবাইল ফোন অপারেটরের কাস্টমার কেয়ার সেন্টারে অথবা বিক্রয় কেন্দ্রে যোগাযোগ করতে হবে।

পুরাতন বা ব্যবহৃত সংযোগ সঠিকভাবে নিবন্ধন করতে চাইলে জাতীয় পরিচয়পত্রসহ স্বতঃস্ফূর্তভাবে মোবাইল ফোন অপারেটরের কাস্টমার কেয়ার সেন্টারে অথবা বিক্রয় কেন্দ্রে এসে আঙুলের ছাপ পদ্ধতিতে নিবন্ধন করতে হবে। ২১ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রীর তথ্যপ্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় নিজের নামে একটি সিমের নিবন্ধনের মাধ্যমে বায়োমেট্রিক্স পদ্ধতির উদ্বোধন করেন। এরপর ১ নভেম্বর থেকে মোবাইল অপারেটরগুলো সার্ভিস সেন্টার ও কাস্টমার কেয়ার সেন্টারে এ কার্যক্রম শুরু করে।

You Might Also Like