১০০ ঘণ্টায় সমাপ্ত মিরপুরে জঙ্গি আস্তানার অভিযান

ঢাকার মিরপুরের দারুস সালাম থানা এলাকার একটি জঙ্গি আস্তানায় চালানো অভিযান প্রায় ১০০ ঘণ্টা পর সমাপ্ত ঘোষণা করা হয়েছে।

শুক্রবার বিকেলে র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার মুফতি মাহমুদ খান অভিযানের সমাপ্তি ঘোষণা করেন। এর আগে গত সোমবার গভীর রাতে জঙ্গির অবস্থান নিশ্চিতের পর দারুস সালামের বর্ধনবাড়ির ‘কমল প্রভা’ ঘিরে রাখে র‌্যাব।

রাত থেকেই দফায় দফার জঙ্গিদের আত্মসমর্পণের আহ্বান জানানো হয়।
পর দিন মঙ্গলবার দিনভর আহ্বানের পর সন্ধ্যা নাগাদ জঙ্গিরা আত্মসমর্পণে রাজি হয়। পরে তারা রাত পৌনে ১০টার দিকে আত্মঘাতী বিস্ফোরণ ঘটায়। এতে আস্তানায় আগুন ধরে যায়। ওই দিন অভিযান স্থগিত রাখে র‌্যাব। রাতে গোলগুলির আওয়াজও শোনা যায়। বুধবার সকালে র‌্যাব জঙ্গি আস্তানায় অভিযান শুরু করলে প্রথমে তিনটিসহ মোট সাতটি মরদেহ পাওয়া যায়। তবে বিস্ফোরণ ও অগ্নিকাণ্ডে লাশগুলো পুড়ে যাওয়ায় লিঙ্গ নির্ধারণ সম্ভব হয়নি। পরে বিকেলে মরদেহগুলো ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়।

মাহমুদ খান বলেন, ‘ভবনটি এখন বিস্ফোরকমুক্ত। এছাড়া ভবনের চতুর্থ ও পঞ্চম তলা র‌্যাবের নিয়ন্ত্রণে থাকবে বলে জানান তিনি। এখনো ভবনটি বসবাসের উপযোগী কিনা বলা যাচ্ছে না। সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে এ বিষয়ে আলাপ করতে হবে। বাসিন্দাদের কিছুদিন অপেক্ষা করতে হবে। বিস্ফোরণে দুটি ফ্লোর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ফলে সেটা টেকনিক্যালি পরীক্ষা ছাড়া বসবাসের জন্য কতটুকু নিরাপদ তা বলা যাচ্ছে না।’

যা উদ্ধার করা হয়েছে : জঙ্গি আস্তানা থেকে র‌্যাব ১৭টি শক্তিশালী বোমা, ৩০টি ইম্প্রুভাইজড হ্যান্ড গ্রেনেড, ৫০টি কেমিক্যাল বোমা, ১৫ কেজির মতো স্প্লিন্টার, ১০ কেজি গান পাউডার, আনুমানিক তিন কেজি সালফার, নয়টি খালি কেস, আনুমানিক ১৫ থেকে ২০ কেজি চারকোল, অসংখ্য সার্কিট, এক কন্টেইনার এসিড, তরল দাহ্য পদার্থ ১১ কন্টেইনার, ধারালো অস্ত্র ৬১টি ও ২টি মাস্ক।

You Might Also Like