হোম » হোয়াইট হাউসে বোমাতঙ্ক, গাড়িচালক আটক

হোয়াইট হাউসে বোমাতঙ্ক, গাড়িচালক আটক

ঢাকা অফিস- রবিবার, মার্চ ১৯, ২০১৭

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের আবাসিক কার্যালয় হোয়াইট হাউসে শনিবার রাতে বোমাতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

এক গাড়িচালক গাড়ি চালিয়ে হোয়াইট হাউসের চেকপয়েন্ট ক্রস করার চেষ্টা করেন। এ সময় তাকে আটকে দেন নিরাপত্তাকর্মীরা। এরপর তাকে আটক করে যুক্তরাষ্ট্রের সিক্রেট সার্ভিস।

মার্কিন গণমাধ্যম সিএনএন জানিয়েছে, গাড়িচালক দাবি করেন, তার কাছে বোমা আছে। সঙ্গে সঙ্গে হোয়াইট হাউসের নিরাপত্তা বাড়ানো হয়।

গাড়িটি সন্দেহজনক ঘোষণা করা হয় এবং হোয়াইট হাউসের আশপাশের রাস্তা বন্ধ করে দেওয়া হয়।

শনিবারের এ ঘটনার সময় হোয়াইট হাউসে ছিলেন না প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ফ্লোরিডায় নিজের অবকাশকেন্দ্র মার-আ লাগোয় ছিলেন তিনি।

হোয়াইট হাউসের নিরাপত্তার দায়িত্বে আছে সিক্রেট সার্ভিস। তারা জানায়, স্থানীয় সময় শনিবার রাত ১১টা ৫ মিনিটে গাড়ি নিয়ে ফিফটিনথ স্ট্রিট ও ই স্ট্রিট এনডব্লিউ চেকপয়েন্ট ক্রস করার চেষ্টা করে ওই গাড়িচালক। এরপর গাড়িচালককে আটক করা হয়।

এটি ছিল শনিবার হোয়াইট হাউসে প্রবেশের দ্বিতীয় ঘটনা। এর আগে এক বাইকচালক লাফিয়ে হোয়াইট হাউসের ভেতরে যাওয়ার চেষ্টা করে।

হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র শন স্পাইসার এক টুইটে জানিয়েছেন, অজ্ঞাত ব্যক্তি হোয়াইট হাউস প্রাঙ্গণে প্রবেশ করতে পারেনি। যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ায় সিক্রেট সার্ভিসের প্রশংসা করেন তিনি।

হোয়াইট হাউসে প্রবেশে চেষ্টার একের পর ঘটনায় সমালোচনার মুখে পড়েছে সিক্রেট সার্ভিস। ১০ মার্চ এক ব্যক্তি নিরাপত্তাবেষ্টনী টপকে মূল ভবনের কাছাকাছি চলে গিয়েছিলেন। সে সময় হোয়াইট হাউসে ছিলেন ট্রাম্প। কীভাবে সতর্ক পাহারা উপেক্ষা করে অনুপ্রবেশকারী মূল ভবনের কাছে পৌঁছে যায়- এ নিয়ে উদ্বেগ ও উৎকণ্ঠা দেখা দেয়।

১০ মার্চ সিক্রেট সার্ভিসের হাতে আটক হওয়ার আগে অনুপ্রবেশকারী জোনাথন ট্রান (২৬) প্রায় ১৬ মিনিট হোয়াইট হাউস প্রাঙ্গণে অবস্থান করেন। ওই ঘটনার পর সিক্রেট সার্ভিস জানায়, এ ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি রোধে নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরো জোরদার করেছে তারা। কিন্তু আট দিনের মাথায় আবার একই ধরনের ঘটনা দেখা গেল।

এসব ঘটনা থেকে প্রশ্ন উঠছে, হোয়াইট হাউসে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প কি নিরাপদ?