হার্ভার্ডে বানিজ্যমন্ত্রীর সাথে নৈশ্যভোজে লাগবে ১০০ ডলার

হার্ভার্ডের সেমিনারে বানিজ্যমন্ত্রীর সাথে নৈশ্যভোজে দাওয়াত প্রতি ১০০ ডলার ধার্য্য করা হয়েছে। পোষাক শিল্প সংক্রান্ত সেমিনারের সাথে বোস্টনের গ্রোসারী ব্যাবসায়ীদের দাওয়াত করে ১০০ ডলার করে চাঁদা ধার্য্য করেছেন স্থানীয় আওয়ামীলীগ নামধারী কতিপয় ব্যক্তি। মন্ত্রীর সাথে সুসম্পর্ক তৈরি ও নৈজভোজে অংশ গ্রহনের নাম করে ৮ ডলারের ডিনার প্লেটের দাম ধরা হয়েছে ৫০ ডলার করে। মন্ত্রীর আগমনকে কেন্দ্র করে মোটা অংকের অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে উক্ত চাঁদাবাজ চক্র।
যুক্তরাষ্ট্রের বোস্টনের হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটিতে আন্তর্জাতিক সেমিনারে বানিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদের অংশগ্রহনের কথা বলে স্থানীয় আওয়ামীপন্থী একটি সংঘবদ্ধ চক্র ব্যাপকহারে চাঁদাবাজি চালাচ্ছে। আগামী ১৪ জুন হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটির দ্য সাউথ এশিয়া ইনস্টিটিউটের মিলনায়তনে ‘গ্লোবালাইজেশন আন্ড সাস্ট্যেইনাবিলিট অফ বাংলাদেশ গার্মেন্টস ইন্ডাস্ট্রিজ’ বিষয়ক উক্ত সেমিনার অনুষ্ঠিত হবে। সেমিনারের প্রচার পত্রে কোথাও প্রধান অতিথির নাম উল্লেখ না থাকলেও বোস্টন ও পার্শ্ববর্তী শহরগুলোর বিভিন্ন ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে ডোনেশনের নামে আদায় করা হচ্ছে মোটা অংকের অর্থ। শুধু তাই নয়, যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদেরকেও বক্তৃতা দেয়ার সুযোগ দেয়ার নাম করেও নেয়া হচ্ছে ডোনেশন। বোস্টনের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মনজুর আলম এ প্রতিনিধিকে বলেন, হার্ভার্ডের নাম ব্যবহার করে সেমিনারের নামে প্রতি বছর আওয়ামীপন্থী একই চক্র এ ধরনের চাঁদাবাজি চালিয়ে আসছে। নিউইংল্যান্ড আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ইকবাল ইউসুফ ও আওয়ামীলীগ নেতা আব্দুর রাজ্জাক ডোনেশন নিতে তার কাছে গিয়েছিল। তিনি স্পষ্ট জানিয়েছেন, তার গ্রোসারী ব্যবসার সাথে পোষাক শিল্পের কোন সম্পর্ক নেই, তাই এসব ভাওতাবাজি সেমিনার তার কোন উপকারে আসবে না। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ক্যামব্রিজের ফার্স্টফুড ব্যবসায়ী জানালেন, তার কাছে ৫/৬ টি আমন্ত্রণ পত্র দেয়া হয়েছে। সেসব আমন্ত্রন পত্রে ১০০ ডলার করে ডোনেশনের কথা উল্লেখ রয়েছে। এসব বিভিন্ন জনের কাছে বিতরন করে উক্ত পরিমানের অর্থ আদায় করতে হবে। তিনি অপারগতা প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, একই চক্র গত বছরও  পরিবেশ বিষয়ক একটি সেমিনার করেছিল আমি সে সময় তাদের অনেক উপকার করেছি, এমনকি আমার দোকান থেকে মধ্যাহ্নভোজ সরবরাহ করেছিলাম। কিন্তু এবারে আর তা সম্ভব হবে না। লীনের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতা রেজ্জাকুল চৌধুরী ফরিদ বলেন, তারা দু’জন আমার কাছে ডোনেশনের জন্য এসেছিলেন কিন্তু আমি দেইনি, তবে দিতে চেয়েছি। কিন্তু আর দেবো না।
এবারের সেমিনারে যুক্তরাষ্ট্র থেকে জিএসপি সুবিধা পাইয়ে দেয়ার প্রলোভন দিয়ে ঢাকা থেকে বিজেএমইএ ও বিকেএমইএ –এর নেতৃবৃন্দদের উক্ত সেমিনারের নিয়ে আসার বন্দোবস্ত চালাচ্ছে বলে জানা গেছে।  প্রচারপত্র, পোস্টার, হার্ভার্ড বাংলাদেশ কনফারেন্সের পাঠানো ইমেইলে কোথাও প্রধান অতিথি বানিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, মহিলা সাংসদ তাজউদ্দিনের কন্যা শিমিম, চ্যানেল আইয়ের পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগর এমনকি এবারের সেমিনারের চেয়ারম্যানের নাম উল্লেখ নেই। অজ্ঞাত এক কারনে এসব নাম গোপন করা হচ্ছে। গত বছরও একই কায়দায় বন ও পরিবেশ মন্ত্রী হাছান মাহমুদ, চ্যানেল আইয়ের প্রকৃতি ও পরিবেশের পরিচালক মুকিত মজুমদারসহ অনেকের নাম গোপন রাখা হয়েছিল। উন্মুক্ত সেমিনার নিয়ে তাদের এ ধরনের লুকোচুরি সাধারন মানুষের মনে আরও নানা সন্দেহের জন্ম দিচ্ছে।

You Might Also Like