সুসংবাদ নেই মোস্তাফিজের রিপোর্টে

অনুশীলনে বাম কাঁধে চোট পাওয়ার কারণে সাসেক্সের হয়ে রয়্যাল লন্ডন ওয়ানডে কাপে মোস্তাফিজুর রহমানের নামা হয়নি। বাঁহাতি এই পেসারের কাঁধের পুরোনো চোঁট ফিরে আসায় ঝুঁকি নেয়নি সাসেক্স। তবে, মোস্তাফিজের এমআরআই রিপোর্টে খুব ভালো কিছু জানা যায়নি। এদিকে, সাসেক্সের ওয়েবপেইজ ও অফিসিয়াল ফেসবুক পেইজেও কিছু জানানো হয়নি।

যদিও তার এই চোটটা গুরুতর নয় বলে আগেই জানিয়েছিলেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের ফিজিও বায়েজিদ ইসলাম খান এবং বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস।

তারা জানিয়েছিলেন, হালকা চোট রয়েছে বলে মোস্তাফিজের দল সাসেক্স তাকে না খেলানোর সিদ্ধান্ত নেয়। বাঁহাতি পেসারের ইনজুরির ব্যাপারে বিসিবি নজর রাখছে বলেও জানান তারা।

স্ক্যান করানোর পর মোস্তাফিজের বাম কাঁধের স্ল্যাপেই (সুপিরিয়র ল্যাব্রাম অ্যান্টেরিয়র অ্যান্ড পোস্টেরিয়র) সমস্যা ধরা পড়েছে বলে জানা যায়। যদিও তাকে ২৭ জুলাইয়ের ওয়ানডে ম্যাচে নামানো হবে কি না তা নিয়ে শঙ্কা থাকছেই।

এমআরআই রিপোর্ট নিয়ে সেখানকার ইউনিভার্সিটি অব গ্রিনউইচের অর্থোপেডিক সার্জন টনি কোচারের সঙ্গে দেখা করার কথা মোস্তাফিজের।

এদিকে, মোস্তাফিজের ব্যাপারে কথা বলার জন্য বাংলানিউজের পক্ষ থেকে জাতীয় দলের ফিজিও বায়েজিদুল ইসলামের সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি। বিসিবি থেকেও কিছু জানানো হয়নি টাইগার এই পেসারের ব্যাপারে।

ব্যথানাশক ইনজেকশনের মাধ্যমে এবং পুনর্বাসনের মাধ্যমে মোস্তাফিজকে ফিট করে তোলা সম্ভব হলেও তা সাময়িক। এছাড়া, অস্ত্রোপচারের মাধ্যমেও কাঁধের এই চোট সারানো সম্ভব। তবে, ব্যথানাশক ইনজেকশন বা ওষুধ দিয়ে মোস্তাফিজকে না খেলানোর নির্দেশনা বিসিবি থেকে কঠোরভাবেই দেওয়া আছে সাসেক্সকে।

এর আগে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) থেকে হ্যামস্ট্রিং ইনজুরি ও কাঁধের হালকা চোট নিয়ে দেশে ফিরেছিলেন মোস্তাফিজ। পুনর্বাসন প্রক্রিয়ার মধ্যে দিয়ে ফিট হয়েই তিনি ইংল্যান্ডে যান। কাউন্টির জন্য তাকে ছাড়পত্র দিয়েছিল বিসিবি। তাই মোস্তাফিজের ব্যাপারে বিসিবির নজরদারি থাকছে।

ওয়ানডে কাপের সাউথ গ্রুপে ৯ দলের পয়েন্ট টেবিলে সাসেক্সের অবস্থা শোচনীয়ই বলা যায়। লন্ডনের কেনিংটন ওভালে হ্যাম্পশায়ারের বিপক্ষে পরবর্তী ম্যাচে মাঠে নামবে সাসেক্স। বুধবার (২৭ জুলাই) বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৭টায় খেলা শুরু হবে। সে ম্যাচে মোস্তাফিজের মাঠে নামা হবে কিনা সেই অপেক্ষায় কোটি টাইগার সমর্থক। সমর্থকরা অপেক্ষায় থাকলেও সেটি নির্ভর করছে স্বাভাবিকভাবে মোস্তাফিজের ব্যথা কতটা কমে তার উপর।

You Might Also Like