হোম » সাপের সন্ধানে!

সাপের সন্ধানে!

admin- Wednesday, August 2nd, 2017

সাপের সন্ধানে গ্রাম থেকে গ্রামান্তরে এমনকি শহরের পর শহরে ছুটে চলেছেন ইব্রাহীম আলী। অফিস কিংবা বাসাবাড়িতে সাপের উপদ্রবের সন্ধান পেলেই ছুটে গিয়ে ধরে আনছেন দুধরাজ, আলদ, মাছুয়া আলদ, নগাই আলদ, কেরেট আলদ, সূর্যমুখী, ভিমরাজ ও পঞ্চনাগসহ বিরল ও বিষধর প্রজাতির সাপ। ইব্রাহীম আলীর দাবি, তিনি একজন স্বর্পরাজ ও ওঝা। তার ছেলে আল-মামুনও স্বর্পরাজ। সাপ ধরতে ছেলে আল-মামুনই তাকে সহযোগিতা করে। কিছু দিন ধরে ইব্রাহীম আলী সিলেটের বিভিন্ন উপজেলায় ঘুরে বেরিয়েছেন। মধ্যখানে কিছুদিন দেশের অন্যত্র অবস্থান করলেও সাম্প্রতিক সময়ে বন্যায় সাপের উপদ্রব বেড়ে যাওয়ায় ইব্রাহীম আলী আবারও বালাগঞ্জ ও ওসমানীনগর উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে সাপের সন্ধানে অভিরাম ছুটে চলছেন।

স্বর্পরাজ ইব্রাহীম আলী বলেন, দীর্ঘদিনের সাধনা ও অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে সাপ ধরা ও সাপ পোষার পাশাপাশি বনজ ওষুধের মাধ্যমে মানুষের উপকারও করে আসছেন। কারও বাসাবাড়িতে সাপের যন্ত্রণায় অতিষ্ঠ হয়ে থাকলে তার সঙ্গে যোগাযোগ করার জন্য অনুরোধ করেন। তিনি পরিবার নিয়ে সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার সোনাপুর গ্রামে বসবাস করছেন। ইব্রাহীম আলীর পুরো পরিবার সাপ ধরা পেশায় নিয়োজিত। সাপ সম্পর্কে ইব্রাহীম আলী বলেন, কিছুসংখ্যক বিষধর সাপ রয়েছে। আর এসব সাপ ছোবল দিলে মানুষের মৃত্যু হতে পারে। আবার সঙ্গে সঙ্গে যথাযথ চিকিৎসা করালে বাঁচানোও সম্ভব। সাপের শরীরে আঘাত না পেলে সাধারণত মানুষকে ছোবল দেয় না। গ্রামাঞ্চলের প্রত্যেক বাড়িতেই বিভিন্ন প্রজাতির সাপ আছে। এরমধ্যে এমন কিছু সাপ আছে যাদের ‘বাড়ির রাখাল’ বলা হয়। সূত্র: যুগান্তর

সর্বশেষ সংবাদ