সাদুল্যাপুরে পল্লী চিকিৎসক খুন, ২ নারী আটক

গাইবান্ধার সাদুল্যাপুর উপজেলায় খাস জমির দখল নিয়ে দু’পক্ষের সংঘর্ষে অনিল কুমার সরকার মুংলু (৫০) নামে এক পল্লী চিকিৎসক খুন হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরো পাঁচজন।

আজ শনিবার সকালে উপজেলার দামোদরপুর ইউনিয়নের জামুডাঙ্গা (জালাদুর মোড়) গ্রামে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। অনিল কুমার ওই একই গ্রামের বাসিন্দা।

আহতরা হলেন- অজিত কুমার সরকার ভুট্টু (৪৫), সুমন চন্দ্র সরকার (৪৮), সঞ্জয় কুমার সরকার (১৮), লিটন কুমার (২০) ও সুশান্ত কুমার (৩৫)। এদের মধ্যে অজিত কুমার সরকারকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ও বাকিদের সাদুল্যাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমকপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, দীর্ঘদিন ধরে জালাদুর মোড়ের কিছু খাস জমি দখল করাকে কেন্দ্র করে অনিলের সঙ্গে একই গ্রামের আকবর আলীর ছেলে সিদ্দিক মিয়ার বিরোধ চলে আসছিল। শনিবার সকালে সিদ্দিক লোকজন নিয়ে ওই জমিতে ঘর নির্মাণ করতে গেলে অনিল ও তার লোকজন বাধা দেন।

এতে দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বেধে যায়। সংঘর্ষের সময় প্রতিপক্ষের হামলায় অনিল কুমারসহ ছয়জন আহত হন। এ অবস্থায় তাদের উদ্ধার করে সাদুল্যাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে চিকিৎসক অনিলকে মৃত ঘোষণা করেন।

সাদুল্যাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফরহাদ ইমরুল কায়েস জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়। মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাইবান্ধা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

ওসি আরো জানান, ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে সুরপি বেগম (২৮) ও মালেকা বেগম (৫০) নামে দুই নারীকে আটক করা হয়েছে।

এ ঘটনায় নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান তিনি।

You Might Also Like