সহোদর হত্যায় ৬ জনের যাবজ্জীবন

দোহারের মুকসেদপুরে চর দখল নিয়ে সংঘর্ষে দুই সহদোর হত্যা মামলায় ছয়জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন ঢাকা জেলা দায়রা জজ আদালত।

বুধবার ঢাকার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ-৫ এর বিচারক জুয়েল রানা এ রায় ঘোষণা করেন। এ মামলার ৭২ আসামির মধ্যে ১০ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হয়।

যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশপ্রাপ্তরা হলেন- শেখ খলিল, বেনু সরদার, কালাম জঙ্গি, সালাম জঙ্গি ও আমজাদ বেপারি।

এ ছাড়া অভিযুক্ত মো. আকন্দ, চাঁন মিয়া সরকার, শেখ জুলমত ও জহির উদ্দিন বেপারি মারা যাওয়ায় তাদের দণ্ড মওকুফ করা হয়।

দণ্ডপ্রাপ্তদের মধ্যে কেবল সালাম জঙ্গি আদালতে হাজির ছিলেন। বাকিরা পলাতক আছেন।

এ মামলায় ৬৩ সাক্ষীর মধ্যে আদালতে ২১ জন বিভিন্ন সময় সাক্ষ্য দেন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ১৯৮৮ সালের ২২ নভেম্বর ঢাকা জেলার দোহার থানাধীন মুকসেদপুর হাইস্কুলের দক্ষিণ পাশের চর দখলকে কেন্দ্র দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। সংঘষের এক পর্যায়ে আসামিদের বন্দুকের গুলিতে রাজা সিকদার নিহত হন। তার ভাই মমিন সিকদার গুলিবিদ্ধ অবস্থায় বাড়িতে অবস্থান করলে সেখানে তাকে হত্যা করে লাশ পদ্মা নদীতে ফেলে দেওয়া হয়। এ ঘটনায় দোহার থানায় হত্যা মামলা দায়ের করা হয়। ১৯৯৩ সালের ১০ ফেব্রুয়ারি শেখ জুলমত, শেখ সোহারা, তাসের শেখ, শাহাজালাল, মজিবুর রহমানসহ ৭২ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করে পুলিশ।

You Might Also Like