সরকার গণতন্ত্র হত্যা করে বাক স্বাধীনতাকে গুম করেছে: খালেদা

বাংলাদেশের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া অভিযোগ করেছেন, সরকার গণতন্ত্র হত্যা করে বাক, ব্যক্তি ও চিন্তার স্বাধীনতাকে গুম করেছে।

১৯৬৯ সালের ২৪ জানুয়ারি ঐতিহাসিক গণঅভ্যূত্থান দিবসের স্মরণে আজ (মঙ্গলবার) গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি এ অভিযোগ করেন।

বেগম জিয়া উল্লেখ করেন, ১৯৬৯ সালের ২৪ জানুয়ারি গণঅভ্যূত্থানের মূল চেতনা ছিল স্বৈরতন্ত্র থেকে গণতন্ত্রে প্রত্যাবর্তন, বহুদলীয় রাজনৈতিক কার্যক্রম, বহুমত এবং চিন্তার চর্চা ও মানুষের নাগরিক স্বাধীনতা ফিরে পাওয়া।

বাংলাদেশের বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতির কথা ‌উল্লেখ করে তিনি বলেন, বাংলাদেশে এখন আবারও একদলীয় স্বেচ্ছাচারী শাসন কায়েম করা হয়েছে, গণতন্ত্রকে হত্যা করে বাক, ব্যক্তি ও চিন্তার স্বাধীনতা এখন গুম করে ফেলা হয়েছে। ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি একতরফা ভোটারবিহীন নির্বাচন করে ভোট দিয়ে ভোটারদের নিজের পছন্দমতো প্রতিনিধি বাছাই করার অধিকার কেড়ে নেয়া হয়েছে।

আজকের এ মহান দিনে স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব, গণতন্ত্র এবং মানুষের মৌলিক ও মানবাধিকার নিশ্চিত করতে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার জন্য দেশবাসীর প্রতি আহবান জানান বেগম খালেদা জিয়া।
ওদিকে, আজকেও দু’টি দুর্নীতির মামলায় রাজধানীর বকশীবাজারের আলিয়া মাদরাসা মাঠে স্থাপিত ঢাকার ৫নং বিশেষ আদালতে হাজিরা দেন বেগম খালেদা জিয়া।

এর আগে ১৯ ডিসেম্বর জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় খালেদা জিয়াসহ সব আসামির সর্বোচ্চ শাস্তি চেয়ে রাষ্ট্রপক্ষ যুক্তি উপস্থাপন শেষ করেন।

খালেদাকে হয়রানি করা হচ্ছে: আইনজীবী

এ প্রসঙ্গে বেগম জিয়ার অন্যতম আইনজীবী মাসুদ আহমেদ তালুকদার রেডিও তেহরানকে বলেন, ‌এটা অত্যন্ত নির্মম আচরণ যে ৭৩ বছর বয়স্কা একজন ভদ্রমহিলা, যিনি তিন/তিনবারের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন তাকে সপ্তাহে তিনদিন আদালতে এনে বসিয়ে রাখা হচ্ছে। তার মা বা সন্তানের মৃত্যু বার্ষিকীতেও আদালতের তারিখ পরিবর্তন করা হয় নি। তাকে মানসিক ও শারীরিকভাবে হয়রানি করার জন্যই আদালত এ কাজটি করছে।
বিএনপি জনগণকে বিভ্রান্ত করছে: হানিফ

বেগম জিয়ার বিরুদ্ধে মামলা প্রসঙ্গে আজ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ বলেছেন, বর্তমান সরকার তার বিরুদ্ধে দুর্নীতির মামলা দেয় নি, দিয়েছে তত্ত্বাবধায়ক সরকার।

তিনি বলেন, বেগম খালেদা জিয়া গত দশ বছর ধরে মামলা নিয়ে তালবাহানা করেছেন। ১৪৭ বার মামলার তারিখ পরিবর্তন করে সময় নষ্ট করেছেন। এখন আর পার পাওয়া যাচ্ছে না দেখে বিএনপি উদ্ভট কথাবার্তা বলে জনগণকে বিভ্রান্ত করছে।

You Might Also Like