সমাজকল্যাণমন্ত্রীর অপসারণ দাবিতে সিলেটে ৩ দিনের কর্মসূচি

৪৮ ঘণ্টার মধ্যে সমাজকল্যাণমন্ত্রী সৈয়দ মহসিন আলীর অপসারণ দাবি ও সিলেটে মন্ত্রীর সকল অনুষ্ঠান বর্জনের সিদ্ধান্তসহ তিন দিনের কর্মসূচি ঘোষণা করেছে সিলেট প্রেসক্লাব।

সাংবাদিকদের নিয়ে সমাজকল্যাণমন্ত্রীর অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্যের প্রতিবাদে সোমবার সিলেট প্রেসক্লাবে আয়োজিত সাংবাদিকদের এক প্রতিবাদ সমাবেশে এ সিদ্ধান্ত হয়।

সমাজকল্যাণমন্ত্রীর অপসারণ দাবিতে সাংবাদিকদের তিন দিনের ধারাবাহিক কর্মসূচির অংশ হিসেবে মঙ্গলবার বেলা ১১টায় সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে মানববন্ধন কর্মসূচিপালন করা হবে। একই সঙ্গে স্থানীয় পত্রিকাগুলোতে মঙ্গলবার থেকে ৫ দিন এক ইঞ্চি দুই কলাম জায়গা খালি রাখা এবং মঙ্গলবার থেকে তিনদিন এক ঘণ্টা করে কলমবিরতি পালনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকবাল সিদ্দিকী সমাজকল্যাণমন্ত্রীর অপসারণ দাবিতে এ কর্মসূচি ঘোষণা করেন।

তিনি বলেন, মন্ত্রীর বক্তব্য আমাদের পেশার ওপর সরাসরি আক্রমণ করেছে। আমরা সমাজকল্যাণমন্ত্রীর অনুষ্ঠান বর্জনের পাশাপাশি কোনো অনুষ্ঠানে মন্ত্রীকে আমন্ত্রণ না জানানোর জন্য সিলেটের সকল সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন সমূহের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।

প্রতিবাদ সমাবেশে সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ দুঃখ প্রকাশ করে সমাজ কল্যাণমন্ত্রীর দেওয়া বিবৃতিরও কঠোর সমালোচনা করেন। তারা বলেন, এই মন্ত্রীকে অবিলম্বে মন্ত্রিসভা থেকে অপসারণ করতে হবে।

সিলেট প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলামের সঞ্চালনায় প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সিলেট প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ও কালের কণ্ঠের ব্যুরো প্রধান আহমেদ নূর, সিলেট প্রেসক্লাবের সিনিয়র সহ-সভাপতি আজিজুল হক মানিক, প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও দৈনিক সিলেটের ডাক’র বার্তা সম্পাদক সমরেন্দ্র বিশ্বাস সমর, সময় টিভি’র ব্যুরো প্রধান ইকরামুল কবির, দৈনিক ইত্তেফাক’র স্টাফ রিপোর্টার হুমায়ুন রশীদ চৌধুরী, প্রেসক্লাবের সহ-সাধারণ সম্পাদক ও একাত্তর টেলিভিশনের ব্যুরো প্রধান ইকবাল মাহমুদ, প্রেসক্লাবের সাবেক সহ-সাধারণ সম্পাদক ও নয়া দিগন্তের স্টাফ রিপোর্টার আফতাব উদ্দিন, দেশ টিভি’র ব্যুরো প্রধান বাপ্পা ঘোষ চৌধুরী প্রমুখ।

You Might Also Like