সব প্রযুক্তি প্রয়োগ করেও খোঁজ মেলেনি পিনাক-৬ এর

পঞ্চম দিন শেষ। একে একে সব প্রযু্ক্তি, সবশেষে দুনিয়ার সেরা “বিমান খোঁজার প্রযুক্তি” প্রয়োগ করেও মাওয়ায় ডুবে যাওয়া লঞ্চ পিনাক-৬ এর খোঁজ মেলেনি। এদিকে সময় যতো গড়াচ্ছে, প্রবল স্রোতে লঞ্চটি ততো দূরে সরে যাওয়ার বা উজান থেকে ভেসে আসা পলি আর বালির নিচে চাপা পড়ার আশঙ্কা ততো জোরালো হচ্ছে।

পিনাক-৬ ডুবে যাওয়ার পর এখন পর্যন্ত যেসব উদ্ধার জাহাজ কাজ করেছে সেগুলো হলো, সার্ভে ভেসেল জরিপ-১০, টাগ বোট কাণ্ডারি-২, অনুসন্ধানী জাহাজ তিস্তা, সন্ধানী, আইটি-৯৭ ও ব-দ্বীপ, ‘নির্ভীক’ ও ‘রুস্তম’। ব্যবহার করা হয়েছে, পানির নিচে খোঁজা ইকো সাউন্ডার, ‘মাটির নিচে’ খোঁজা সাব বটম প্রোফাইলারসহ আধুনিক “বিমান খোঁজার প্রযুক্তি”। কিন্তু দুর্ঘটনাস্থলকে ঘিরে ৫০ বর্গকিলোমিটার এলাকায় তল্লাশি চালিয়েও চিহ্নিত করা যায়নি লঞ্চটির অবস্থান। শুরু থেকেই উদ্ধার অভিযানের সঙ্গে রয়েছে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের ডুবুরি ও উদ্ধারকর্মীরা।

কিন্তু সব প্রযুক্তি, সব প্রচেষ্টাকে ব্যর্থ করে দিয়ে এখন পর্যন্ত নিখোঁজ রয়েছে পিনাক-৬। অবশ্য মন্ত্রীসহ অনুসন্ধানকারীরা বলছেন, লঞ্চটির খোঁজ না পাওয়া পর্যন্ত তাদের অনুসন্ধান থামবে না।

You Might Also Like