সংসদ সদস্যের কাণ্ড !

রোববার দুপুর দেড়টা। দলীয় সভা শেষে স্থানীয় ভালুকগাছি-বাঁশপুকুর সড়ক হয়ে পুঠিয়ার নিজ বাড়িতে ফিরছিলেন রাজশাহী-৫ (পুঠিয়া-দুর্গাপুর) আসনের সংসদ সদস্য আব্দুল ওয়াদুদ দারা। ওই রাস্তাটি দীর্ঘ দিন ধরে খানা-খন্দে ভরা। ফলে পথচারীদের পড়তে হয় বিড়ম্বনায়। সংসদ সদস্যের বেলায় তার ব্যতিক্রম ঘটেনি।

বাঁশপুকুর এলাকায় রাস্তার ধারেই দাঁড়িয়ে ছিল কয়েকজন কিশোর-যুবক। সংসদ সদস্যের এমন দুর্ভোগ দেখে এদের মধ্যে থেকে মিঠুন (১৭) নামের এক কিশোর বলে ওঠে, ‘ভাঙা রাস্তা ঠিক করেন না কেন?’

আর তা শুনে সঙ্গে সঙ্গে গাড়ি থেকে নেমে আসেন সংসদ সদস্য। তার আগেই ওই কিশোরসহ অন্যরা সেখান থেকে পালিয়ে যায়।

সেখানে দাঁড়িয়ে থেকেই দুর্গাপুর থানার ওসিকে ফোন করেন সংসদ সদস্য আব্দুল ওয়াদুদ দারা। কিছুক্ষণের মধ্যে দুর্গাপুর থানার এএসআই ফয়সাল সঙ্গীয় ফোর্সসহ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন। এসময় সেখানে দাঁড়িয়ে থাকা কয়েকজন গ্রামবাসীকে মারধর করেন। আটক করেন সুমন (২২) ও মামুন (২৩) নামের দুই যুবককে। খবর পেয়ে এগিয়ে এলে পুলিশ আলম (৪৫) নামের স্থানীয় আরেক ব্যক্তিকে আটক করে। সেখান থেকে একটি ক্যারামবোর্ড জব্দ করে থানায় নেয়া হয়।

দুর্গাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) পরিমল কুমার চক্রবর্তী ওই তিন জনকে আটকের সত্যতা স্বীকার করেছেন। তিনি বলেন, সংসদ সদস্যকে কটূক্তি করায় তাদের আটক করা হয়েছে।

নিজ থানা এলাকার বাইরে গিয়ে আটক করে নিয়ে আসা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, সংসদ সদস্য নিরাপত্তা হীনতায় ভুগছেন এমন ফোন পেয়ে পুলিশ সেখানে গেছে। ওই সময় পুঠিয়া থানা পুলিশের একটি দলও ঘটনাস্থলের আশেপাশেই ছিল। তবে দুর্গাপুর থানা পুলিশ আগে যাওয়ায় তারাই ওই তিন জনকে আটক করেছে। বিষয়টি পুঠিয়া থানা পুলিশকে জানানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

এ বিষয়ে কয়েক দফা যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও সংসদ সদস্য আব্দুল ওয়াদুদ দারার মুঠোফোনটি বন্ধ পাওয়া গেছে।

You Might Also Like