শ্রীমঙ্গলে ডাকাত সর্দার গ্রেফতার

শ্রীমঙ্গলে সিলেট বিভাগীয় আন্তঃজেলা ডাকাত দলের সর্দার ফজর আলী বাটুনকে (৩৭) গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার জেলা ও চুনারুঘাট থানা পুলিশের সহযোগিতায় চুনারুঘাট এলাকা থেকে ওই ডাকাত সর্দারকে গ্রেফতার করেছে শ্রীমঙ্গল থানা পুলিশ।

গ্রেফতারকৃত ডাকাত সর্দার ফজর আলী বাটুন হবিগঞ্জ জেলার চুনারুঘাট থানার কচুয়া গ্রামের ইদ্রিস আলীর ছেলে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

শ্রীমঙ্গল থানা পুলিশ জানিয়েছে, মৌলভীবাজার সদর ও চুনারুঘাট থানা পুলিশের সহযোগিতায় চুনারুঘাট থানা এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় ২৩টিরও বেশি ডাকাতি মামলা রয়েছে।

তিনি ছদ্মবেশ ধারণ করে বিভিন্ন এলাকায় গিয়ে ডাকাতি করার নকশা প্রস্তুত করেন। পরে তিনি তার সহযোগীদের নিয়ে পূর্বপরিকল্পনা মোতাবেক ডাকাতি করে থাকে।

গত ২ নভেম্বর উপজেলার ভাড়াউড়া চা বাগানের স্টাফ শামীম আহমেদের বাসভবনে তার নেতৃত্বে ডাকাতি সংঘটিত হয়। পরে পুলিশ ব্যাপক অনুসন্ধান করে এই ভয়ঙ্কর ডাকাত সর্দারের খোঁজ পায়। আটকের পর তিনি পুলিশের কাছে স্বীকার করেন, ওই বাসায় ডাকাতি করার আগে ছদ্মবেশে জুতা বিক্রির উদ্দেশ্য সেখানে গিয়ে সব কিছু রেকি করে আসেন। পরে তার দলবল নিয়ে ডাকাতি করেন বলে পুলিশকে জানান।

১৫ নভেম্বর গভীর রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে চুনারুঘাট থানা এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

এদিকে পৃথক এক অভিযানে ওই কুখ্যাত ডাকাত সর্দার বাটুনের আরেক সহযোগী স্বপন মিয়াকে গ্রেফতার করে থানা পুলিশ। তিনি হবিগঞ্জ জেলার শায়েস্তাগঞ্জ এলাকার মৃত জলফু মিয়ার ছেলে। তার বিরুদ্ধেও বিভিন্ন থানায় ১০টি ডাকাতির মামলা রয়েছে বলে পুলিশ জানায়।

শ্রীমঙ্গল থানার ওসি আব্দুস ছালিক মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সাংবাদিকদের বলেন, গ্রেফতারকৃত ডাকাত বাটুন আন্তঃজেলা ও সিলেট বিভাগীয় ডাকাত দলের সর্দার। পুলিশের যৌথ অভিযানে তাকে আটক করা হয়েছে। তিনি আরও জানান, তার সহযোগী অন্য ডাকাতদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।