শুভ জন্মদিন রিয়াজ

ঢালিউড চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় নায়ক রিয়াজ। আজ তার ৪২তম জন্মদিন।

জানা গেছে, জন্মদিনে সারাদিন বাসাতেই থাকছেন রিয়াজ। দিনটি ঘরোয়াভাবেই উদযাপন করবেন তিনি। বিগত বেশ কয়েকটি দিন একটানা কাজ করেছেন বলে একটু ক্লান্ত, তাই বাসায় ঘুমিয়েই জন্মদিনটা কাটাবেন।

১৯৭২ সালের ২৬ অক্টোবর ফরিদপুরে একটি সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন রিয়াজ। তাঁর বাবা জাইনুদ্দিন আহমেদ সিদ্দিক ছিলেন সরকারী চাকুরীজীবি; মাতা আরজুমান্দ আরা বেগম গৃহিণী। রিয়াজ পরিবারের কনিষ্ঠ সন্তান। ছোটবেলায় রিয়াজের ইচ্ছে ছিল স্থপতি হবেন কিন্তু পরবর্তীকালে পেশাগতভাবে হলেন বৈমানিক। কিন্তু সে পেশায় বেশীদিন স্থায়ী ছিলেন না।

১৯৯৫ সালে বাংলার নায়ক চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে চলচ্চিত্র জগতে পদার্পণ করেন। ১৯৯৭ সালে মোহাম্মদ হান্নান পরিচালিত প্রাণের চেয়ে প্রিয় চলচ্চিত্রে রিয়াজ অভিনয় করে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পান।

রিয়াজ অভিনীত মুক্তি পাওয়া উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্রগুলো হল- ‘প্রাণের চেয়ে প্রিয়’ ও ‘হৃদয়ের আয়না’ (১৯৯৭), ‘ভালবাসি তোমাকে’, ‘পৃথিবী তোমার আমার’, ‘বুক ভরা ভালোবাসা’ ও ‘কাজের মেয়ে’ (১৯৯৮), ‘বিয়ের ফুল’ ও ‘স্বপ্নের পুরুষ’ (১৯৯৯), ‘এ বাঁধন যাবেনা ছিঁড়ে’, ‘সাবধান’ ও ‘ভয়ঙ্কর বিষু’ (২০০০), ‘হৃদয়ের বন্ধন’, ‘শ্বশুরবাড়ী জিন্দাবাদ’, ‘মিলন হবে কত দিনে’ ও ‘প্রেমের তাজমহল’ (২০০১), ‘নিঃশ্বাসে তুমি বিশ্বাসে তুমি’, ‘প্রিয়া তুমি কোথায়’ ও ‘সুন্দরী বধূ’ (২০০২), ‘মাটির ফুল’, ‘ভালবাসা কারে কয়’, ‘মনের মাঝে তুমি’, ‘স্বপ্নের বাসর’ ও ‘জামাই শ্বশুর’ (২০০৩), ‘রং নাম্বার’ ও ‘ছোট্ট একটু ভালবাসা’ (২০০৪), ‘মোল্লা বাড়ীর বউ’ (২০০৫), ‘হৃদয়ের কথা’ (২০০৬), ‘আকাশ ছোঁয়া ভালোবাসা’ ও ‘তোমাকেই খুঁজছি’ (২০০৮), ‘চাঁদের মত বউ’ ও ‘মন বসে না পড়ার টেবিলে’ (২০০৯), ‘বাজাও বিয়ের বাজনা’ (২০১০) এবং ‘লোভে পাপে পাপে মৃত্যু’ (২০১৪)।

ভারতীয় চলচ্চিত্রকার ও অভিনেতা মহেশ মাঞ্জরেকারের ইট ওয়াজ রেইনিং দ্যাট নাইট নামক একটি ইংরেজি চলচ্চিত্রেও অভিনয় করেছেন রিয়াজ। জনপ্রিয় এই চিত্রনায়ক তিনবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারসহ অসংখ্য সম্মাননা অর্জন করেছেন।

বিগত বেশ কয়েক বছর ধরে চলচ্চিত্রে অভিনয়ে থেকে দূরে ছিলেন রিয়াজ। সাম্প্রতিক সময়ে আবার চলচ্চিত্রে কাজ শুরু করেছেন। বর্তমানে ওয়াজেদ আলী সুমনের পরিচালিত সুইটহার্ট সিনেমায় অভিনয় করছেন রিয়াজ।

You Might Also Like