শিশুকে ধর্ষণ: ধর্ষককে গণপিটনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ

শ্রীপুরে সাত বছর বয়সী এক শিশুকে নির্যাতন পর ধর্ষণ করেছে প্রতিবেশী এক সন্ত্রাসী। ঘটনার পর গ্রামবাসী ধর্ষককে ধরে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে। ধর্ষিত শিশু নারায়ণপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্রী।

শনিবার বিকেলে উপজেলার গোসিংগা ইউনিয়নের নারায়ণপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

ধর্ষক আনোয়ার হোসেন (৩৫) ওই গ্রামের কৃষক আবদুস সালামের ছেলে। ধর্ষণের ঘটনায় রাতে ধর্ষিত শিশুর মা বাদী হয়ে শ্রীপুর মডেল থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

জানা গেছে, ধর্ষিত শিশুটির বাবা প্রায় পাঁচ বছর আগে মারা গেছেন। মা ঝিয়ের কাজ করেন।

শিশুর ফুফু জানান, শনিবার বিকেল তিনটার দিকে বাড়ির পাশে খেলার মাঠে গিয়ে সহপাঠীদের সঙ্গে খেলছিল শিশুটি। খেলার মাঠে গিয়ে প্রতিবেশী আনোয়ার হোসেন শিশুর মুখ চেপে ধরে পশ্চিমে গজারিবনের দিকে চলে যায়। পরে শিশুর সহপাঠীদের কাছ থেকে জেনে দেড় ঘণ্টা পর গ্রামবাসী রক্তাক্ত অবস্থায় শিশুটিকে উদ্ধার করে।

ধর্ষিত শিশুর মা জানান, গজারিবনের ভেতর নিয়ে তাঁর শিশু মেয়েকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করেছে আনোয়ার। রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধারের পর তাঁর মেয়ে ঘটনা প্রকাশ করে বেহুঁশ হয়ে পড়ে।

শনিবার সন্ধ্যায় ধর্ষণের ঘটনা জেনে বিক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে গ্রামবাসী।

গোসিংগা ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) চেয়ারম্যান খন্দকার আসাদুজ্জামান বলেন, ‘শিশু ধর্ষণের ঘটনা জানা জানি হলে গ্রামের হাজারো মানুষ বিক্ষুব্ধ হয়ে ধর্ষককে ধরে গণপিটুনি দিয়েছে।’

শ্রীপুর মডেল থানার ওসি আসাদুজ্জামান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘ধর্ষণের ঘটনায় শিশুর মা বাদী হয়ে মামলা করেছেন।

You Might Also Like