শিলং আদালতে ২৯ মে সালাহ উদ্দিনের জামিন আবেদনের শুনানি

ভারতের মেঘালয় রাজ্যের শিলং আদালতে বিএনপির যুগ্মমহাসচিব সালাহ উদ্দিন আহমেদের জামিন আবেদন করা হয়েছে। শিলং আদালত আগামী ২৯ মে এ বিষয়ে শুনানির জন্য দিন ধার্য করেছেন।

শুক্রবার শিলংয়ের প্রথম শ্রেণির বিচারিক আদালতে সালাহ উদ্দিনের জামিন চেয়ে আবেদনটি করেন তার স্ত্রী হাসিনা আহমেদ। আদালত তা গ্রহণ করে ২৯ মে শুনানির দিন ধার্য করেন।

শনিবার শিলং টাইমসের এক প্রতিবেদনে এ কথা জানানো হয়েছে।

জামিন আবেদন করা হলেও সালাহ উদ্দিনকে আদালতে হাজির করা হয়নি। বর্তমানে তিনি নর্থ ইস্টার্ন ইন্দিরা গান্ধী রিজিওনাল ইনস্টিটিউট অব হেলথ ও মেডিক্যাল সায়েন্সেস-এ চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

শিলং আদালতের একজন সরকারি কৌঁসুলি জানিয়েছেন, জামিন আবেদনে হাসিনা আহমদ উল্লেখ করেছেন যে, তার স্বামী সালাহ উদ্দিন চলতি বছরের ১০ মার্চ নিখোঁজ হন। সাদা পোশাকে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা তাকে বাসা থেকে তুলে নিয়ে যায়।

এ ঘটনায় থানায় অপহরণের অভিযোগে এফআইআর করতে গেলে পুলিশ তা নথিভুক্ত করতে অস্বীকৃতি জানায়।

পরে তিনি এ ঘটনায় দেশে হাইকোর্টে একটি রিট পিটিশন দায়ের করেন। আদালত স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে প্রতিমাসে সালাহ উদ্দিনের ঘটনার তদন্তের অগ্রগতি জানানোর নির্দেশ দেন।

সালাহ উদ্দিন আহমদ চিকিৎসাধীন থাকায় মেঘালয় পুলিশ প্রকৃতপক্ষে সালাহ উদ্দিনের ঘটনার কোনো তদন্ত করতে পারেনি। এই অবস্থায় তার জামিন পাওয়ার বিষয়টি অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে বলে জানিয়েছেন ওই সরকারি কৌঁসুলি।

আবেদনে আরো বলা হয়েছে, সালাহ উদ্দিন আহমদ গুরুতর অসুস্থ। সুস্থ্য হওয়ার জন্য বিদেশে উন্নত চিকিৎসার প্রয়োজন তার।

সালাহ উদ্দিনের পাসপোর্ট ও বিদেশে বিশেষ করে সিঙ্গাপুরে চিকিৎসা নেয়ার ভিসাও আবেদনের সঙ্গে আদালতে জমা দেয়া হয়েছে।

You Might Also Like