শিগগিরই কর্মী নেবে মালয়েশিয়া: মানবসম্পদমন্ত্রী

মালয়েশিয়ার মানবসম্পদ মন্ত্রী রিচার্ড রায়ট আনাক জায়েম বলেছেন, শিগগিরই মালয়েশিয়া বাংলাদেশ থেকে কর্মী নেবে। সরকার নির্ধারিত ব্যয়ে মালয়েশিয়া সরকার ও বাংলাদেশ সরকার কর্মী গমনাগমনের বিষয়ে একমত প্রকাশ করেন। প্রাথমিক পর্যায়ে নির্মাণ শ্রমিক, প্লান্টেশন ও ম্যানুফেকচার খাতে কর্মী নেবে বলে তিনি জানান।

মঙ্গলবার প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসির সাথে সফররত মালয়েশিয়ার মানবসম্পদ মন্ত্রী রিচার্ড রায়ট আনাক জায়েমের এক বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত হয়।

রাজধানীর একটি হোটেলে অনুষ্ঠিত বৈঠকে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় থেকে প্রেরণকৃত ৭৪৫টি রিক্রুটিং এজেন্সীর মাধ্যমে কর্মী পাঠানো নিশ্চিত করার বিষয়ে বৈঠকে আলোচনা হয়।

বৈঠকে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী বলেন, মালয়েশিয়ায় জনশক্তি রপ্তানিতে দালাল চক্র নির্মূল করার ব্যাপারে সরকার বদ্ধপরিকর। মালয়েশিয়া বাংলাদেশের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ শ্রমবাজার। দক্ষ ও আধাদক্ষ কর্মী পাঠানোর জন্য বাংলাদেশ প্রস্তুত রয়েছে। ইতোমধ্যে কর্মী প্রেরণের কৌশল নিয়ে উভয় পক্ষ একাধিকবার বৈঠক করেছে।

নুরুল ইসলাম বিএসসি বলেন, জনশক্তি রপ্তানিতে গুটিকয়েক রিক্রুটিং এজেন্সিকে সুযোগ না দিয়ে পূর্বে পাঠানো ৭৪৫টি রিক্রুটিং এজেন্সি থেকে অভিজ্ঞ ও সুনামধন্য রিক্রুটিং এজেন্সীর মাধ্যমে কর্মী পাঠানো নিশ্চিত করা হবে। এতে অভিবাসন ব্যয় হ্রাস পাবে এবং সরকার নির্ধারিত অভিবাসন ব্যয়ে কর্মী পাঠানো যাবে। বৈঠক শেষে মালয়েশিয়ার প্রতিনিধিদলের সম্মানে মধ্যাহ্নভোজের আয়োজন করা হয় এবং মন্ত্রীদ্বয়ের মধ্যে স্মারক বিনিময় হয়।

মালয়েশিয়ার ৯ সদস্য বিশিষ্ট প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেন মালয়েশিয়ার মানবসম্পদ মন্ত্রী রিচার্ড রায়ট আনাক জায়েম।

প্রতিনিধিদলের অন্যান্য সদস্যরা হলেন- ঢাকায় নিযুক্ত মালয়েশিয়ার হাইকমিশনার নুর আশিকিন বিনতে মোহাম্মদ তায়েব, মানবসম্পদ মন্ত্রণালয়ের উপমহাসচিব শাহনিয়ার বিন দারুসমান, ইমিগ্রেশনের মহাপরিচালক হাজি মুস্তাফার বিন হাজি আলী, শ্রম অধিদফতরের মহাপরিচালক জেফরি বিন জোয়াকিম, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিদেশী শ্রমিক ব্যবস্থাপনা শাখার উপসচিব জামিরি বিন মাত জিন, অভিবাসন দফতরের পরিচালক খায়রুল খায়ের বিন ইয়াহিয়া, মানবসম্পদ মন্ত্রণালয়ের মুখ্য সহকারী সচিব শাহাবুদ্দিন বিন আবু বকর ও মানবসম্পদ মন্ত্রীর বিশেষ কর্মকর্তা রবার্ট আনাক দাপন।

বাংলাদেশের পক্ষে ১০ সদস্যের বিশিষ্ট প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি।

বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলের অন্যান্য সদস্যরা হলেন- মন্ত্রণালয়ের সচিব বেগম শামছুন নাহার, জনশক্তি, কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর মহাপরিচালক মো. সেলিম রেজা, মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব জাবেদ আহমেদ, যুগ্মসচিব নারায়ন চন্দ্র বর্মা, যুগ্মসচিব মো. আকরাম হোসেন, যুগ্মসচিব মো. বদরুল আরেফীন, মন্ত্রীর একান্ত সচিব মো. মোহসিন চৌধুরী, মালয়েশিয়াস্থ বাংলাদেশের কাউন্সেল (শ্রম) মো. সাইদুল ইসলাম ও বিএমইটি’র পরিচালক ড. নুরুল ইসলাম।

-আরটিএনএন

You Might Also Like