শাকিবের বয়কটের আদৌ কি সুরাহা হলো?

জনপ্রিয় চিত্রনায়ক শাকিব খানকে বেশ কয়েকবার বয়কট করেছে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিবার। ২৯ আগস্ট চলচ্চিত্র পরিবারের আহ্বায়ক চিত্রনায়ক ফারুকের বাসায় গিয়েছিলেন শাকিব খান।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন প্রখ্যাত চিত্রপ‌রিচালক আমজাদ হো‌সেন, বাপ্পারাজ, চল‌চ্চিত্র প‌রিচালক স‌মি‌তির মহাস‌চিব বদিউল আলম খোকন, নৃত্য প‌রিচালক স‌মি‌তির সভাপ‌তি মাসুম বাবুল, প্রযোজক আরশাদ আদনান, শিল্পী স‌মি‌তির সভাপ‌তি মিশা সওদাগর ও সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান প্রমুখ।

এর পরই চলচ্চিত্রাঙ্গনে খবর রটে চলচ্চিত্র পরিবার ও শাকিবের মধ্যে চলমান দ্বন্দ্বের অবসান হয়েছে। এ নিয়ে দেশের সংবাদমাধ্যমগুলোতে খবরও প্রকাশ হয়। তবে এখন পর্যন্ত বয়কট তুলে নেয়নি চলচ্চিত্র পরিবার। এদিকে শাকিব খানও এটাকে দ্বন্দ্বের অবসান হিসেবে দেখছেন না।

শাকিব খানের ঘনিষ্ঠজন প্রযোজক ইকবাল বলেন, ‘ফারুক সাহেব আমাদের গুরুজন। তাই তার সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলেন শাকিব। শুধু ফারুক সাহেবের সঙ্গে তার ভুল বোঝাবুঝির বিষয়টি মীমাংসা করতেই তিনি গিয়েছিলেন। অন্য কারো সঙ্গে মীমাংসা করতে নয়।’

তিনি আরো বলেন, ‘যারা এখন খবর প্রকাশ করছেন শাকিব ও চলচ্চিত্রে পরিবারের দ্বন্দ্বের অবসান ঘটেছে এটা ভুল তথ্য।’

এদিকে আজ বুধবার বিকেল ৪টায় এফডিসিতে সকল সংগঠনের নেতাদের সঙ্গে শাকিব খানের দেখা করার কথা ছিল। তখনই শাকিবের বয়কটের বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানানো হবে বলেও খবর রটে। কিন্তু শাকিব খান এখন পর্যন্ত এফডিসিতে যাননি।

চলতি বছরের ২৩ জুন এফডিসির সমস্ত সংগঠন শাকিব খানকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করে। যৌথ প্রযোজনার নামে দেশের প্রচলিত আইন ভাঙার কারণেই এ নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। সেই সঙ্গে শাকিব খানের সঙ্গে চলচ্চিত্র পরিবারের অন্তর্ভুক্ত ১৮ সংগঠনের সকল সদস্যকে কাজ না করার নির্দেশ দেওয়া হয়। এ নিয়ে নানারকম প্রতিবন্ধকতায় দিন পার করছে ঢাকার চলচ্চিত্র শিল্প।

You Might Also Like