রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের মতামত চেয়েছে রোমভিত্তিক আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত

শেখ শাহরিয়ার জামান : নির্যাতনের মুখে নো-ম্যানস ল্যান্ডে জড়ো হওয়া রোহিঙ্গা নারী-পুরুষ (ফাইল ছবি) রোহিঙ্গা নির্যাতনের বিষয়ে মামলা চালানোর অধিকার আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের (আইসিসি) আছে কিনা– এ বিষয়ে বাংলাদেশের মতামত জানতে চেয়েছে রোমভিত্তিক আদালতটি।
আইসিসির প্রি-ট্রায়াল চেম্বার গতকাল সোমবার (৭ মে) এ সংক্রান্ত একটি চিঠি পাঠিয়েছে বাংলাদেশকে। এতে আগামী ৮ জুনের মধ্যে প্রকাশ্যে বা গোপনীয়ভাবে মতামত জানানোর জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে।
এ বিষয়ে পররাষ্ট্র সচিব মো. শহীদুল বলেন, ‘আমরা তাদের অনুরোধ পেয়েছি এবং বিষয়টি বিবেচনা করছি।’
আইসিসির ওই পত্রে বলা হয়েছে, ‘মিয়ানমার থেকে রোহিঙ্গাদের বিতাড়নের কারণে বাংলাদেশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ফলে চেম্বার মনে করে বাংলাদেশের কাছ থেকে এ বিষয়ে মতামত চাওয়াটা সঠিক।’
বাংলাদেশের কাছে আন্তর্জাতিক আদালতটি তিন বিষয়ে মতামত চেয়েছে। প্রথমত, মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে পালিয়ে আসার পর রোহিঙ্গাদের অবস্থা কী; দ্বিতীয়ত, রোহিঙ্গা বিতাড়ন বিষয়ে শুনানির জন্য আইসিসির কোনও অধিকার আছে কিনা এবং তৃতীয়ত, এ সংক্রান্ত অন্য যেকোনও প্রয়োজনীয় তথ্য প্রদান।
গত ৯ এপ্রিল আইসিসির প্রসিকিউটর ফাতু বেনসৌদা রোহিঙ্গা নির্যাতনে মামলা শুনানির অধিকার সংক্রান্ত একটি রুলের জন্য ওই আদালতে আবেদন দাখিল করেন। এর দুদিন পর আইসিসি তিনজন বিচারকের সমন্বয়ে একটি প্রি-ট্রায়াল চেম্বার গঠন করে। এরপর বাংলাদেশের মতামত চাওয়া হলো।
মিয়ানমার সামরিক বাহিনীর নির্যাতনে গত কয়েক বছরে ১০ লাখের বেশি রোহিঙ্গা বাংলাদেশে পালিয়ে এসেছে। এরমধ্যে গত বছরের ২৫ আগস্টের পর থেকে গণহত্যা, ধর্ষণ ও অগ্নিসংযোগের মুখে পালিয়ে এসেছে ৬ লাখেরও বেশি রোহিঙ্গা।
তাদের মধ্যে ৩০ হাজার অন্তঃসত্ত্বা নারী, ৩৬ হাজার অনাথ এবং ৭ হাজার ৮০০ শিশু, যাদের বাবা ও মা উভয়েই নিখোঁজ।

You Might Also Like