রোহিঙ্গাদের ভোটাধিকার কেড়ে নিল মিয়ানমার

মিয়ানমারে বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের চাপের মুখে সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা মুসলিমদের ভোটাধিকার বাতিল করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী।

আন্তর্জাতিক চাপে রোহিঙ্গাদের অস্থায়ীভাবে ভোটাধিকার প্রদান করে দেশটির সরকার। কিন্তু তাদের ভোটাধিকার বাতিল ও দেশ থেকে বিতাড়িত করার জন্য ইয়াঙ্গুনে বেশ কয়েক দিন ধরে বিক্ষোভ-সমাবেশ করে আসছেন বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের শত শত লোক।

চলমান ওই আন্দোলনের জেরে গত বুধবার রোহিঙ্গাদের ভোটাধিকার বাতিল করেন প্রধানমন্ত্রী ও একই সঙ্গে প্রেসিডেন্টের পদ দখল করা প্রাক্তন সেনাপ্রধান থেইন সেইন।

মিয়ানমারে ১১ লাখেরও বেশি রোহিঙ্গা রয়েছে। কিন্তু দেশটির সরকার ও বৌদ্ধরা তাদের নাগরিক হিসেবে গণ্য করে না। গত বছরের আদমশুমারিতেও তাদের নাগরিক হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়নি।

২০১২ সালে দেশটির রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গা ও উগ্রপন্থী বৌদ্ধদের মধ্যে সংঘর্ষে প্রায় ২০০ লোক নিহত প্রাণ হারান, যাদের অধিকাংশ রোহিঙ্গা মুসলিম।

রোহিঙ্গাদের মানবাধিকার নিশ্চিত করতে জাতিসংঘ, যুক্তরাষ্ট্রসহ বিভিন্ন রাষ্ট্র ও আন্তর্জাতিক সংস্থা দেশটির সরকারকে চাপ দিয়ে আসছে। কিন্তু নতুন এ সিদ্ধান্ত দেশটির রোহিঙ্গা সমস্যা আরো ঘনীভূত করে তুলবে বলে মত দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

তথ্যসূত্র : বিবিসি।

You Might Also Like