রোহিঙ্গাদের জন্য ২০ শয্যার হাসপাতাল চালু করল ইরান

মিয়ানমার থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জন্য ২০ শয্যার একটি ভ্রাম্যমান হাসপাতাল চালু করেছে ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরান। ইরানের রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির উদ্যোগে এ হাসপাতাল স্থাপন করা হয়েছে। আজ (সোমবার) বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বা ডাব্লিউএইচও’র প্রতিনিধির উপস্থিতিতে হাসপাতাল উদ্বোধন করা হয়েছে।

ইরানি হাসপাতালে নারী ও প্রসূতি বিভাগসহ বেশ কয়েকটি বিভাগ রয়েছে। এখানে রোহিঙ্গাদের পাশাপাশি স্থানীয়রাও চিকিৎসা নিতে পারবেন। আজকের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রামের সমাজ সেবক মাওলানা আমজাদ হোসেন। তিনি বলেছেন, “ইরান সব সময় রোহিঙ্গাদের পাশে ছিল। আমরা ইরানের এ পদক্ষেপকেও স্বাগত জানাচ্ছি। রোহিঙ্গাদের পাশাপাশি স্থানীয়রাও এ হাসপাতাল থেকে উপকৃত হবে।”

ইরানের উপ-রাষ্ট্রদূত শাফিয়ি হাসপাতাল প্রতিষ্ঠায় সহযোগিতার জন্য বাংলাদেশের সরকার ও সেনাবাহিনীকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, ইরান প্রথম থেকেই রোহিঙ্গা শরণার্থীদের প্রতি সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছে। হাসপাতাল পরিচালনার ব্যয়ও ইরান বহন করবে। হাসপাতাল প্রতিষ্ঠার জন্য ইরানকে ধন্যবাদ জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বা ডাব্লিউএইচও।

বিশ্বের যেখানেই মানুষের ওপর নিপীড়ন ও নির্যাতনের ঘটনা ঘটে সেখানেই সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে ইরান। এরই অংশ হিসেবে রোহিঙ্গা মুসলমানদের অধিকারের বিষয়ে প্রথম থেকেই সোচ্চার রয়েছে তেহরান।

You Might Also Like