Uncategorized

রোনালদোর হাতেই উঠল ব্যালন ডি’অর

সবই ছিল স্টেজে। পুরস্কার ফুটবলের হলেও বিশ্বের অন্যান্য ক্রীড়াঙ্গনের আলোচিত তারকারাও হাজির হন জুরিখের ফিফা কংগ্রেসের হলরুমে। সব কিছুর কেন্দ্রবিন্দুতেই ছিল- কে হচ্ছেন ফিফার ২০১৪ সালের ব্যালন ডি’অর জয়ী। লায়নেল মেসি, ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো ও বিশ্বকাপ জয়ী গোলরক্ষক ম্যানুয়েল নুয়েরের ব্যক্তিগত অ্যাওয়ার্ড অর্জনের লড়াই জমেছিলও দারুণ। তিনজনই ছিলেন যোগ্য দাবিদার। নুয়ের জিতেছেন বিশ্বকাপ।

রোনালদোর চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গোল রেকর্ড ও মেসির নজরকাড়া বিশ্বকাপ নৈপুণ্য- সব মিলিয়ে অ্যাওয়ার্ডটি কার হাতে উঠবে, তাই ছিল প্রধান আকর্ষণ। শেষ পর্যন্ত ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোই জিতলেন ২০১৪ সালের বর্ষসেরা ফুটবলারের অ্যাওয়ার্ড- ফিফা ব্যালন ডি’অর। গতকাল সুইজারল্যান্ডের জুরিখে ফিফার বার্ষিক গালা শোর মধ্যমণি হয়ে ওঠেন তিনি।

ফ্রান্সের বিশ্বকাপ জয়ী স্ট্রাইকার থিয়েরি অরি রোনলদোর হাতে তুলে দেন বর্ষসেরা ফুটবলারের অ্যাওয়ার্ড। পর্তুগাল ও রিয়াল মাদ্রিদের সুপার স্টার ফুটবলার ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো টানা দ্বিতীয়বারের মতো বিশ্বসেরা ফুটবলার হলেন। গত বছরও পুরস্কারটি তিনিই জিতেছিলেন। লায়নেল মেসি সর্বোচ্চ চারবার পুরস্কারটি জিতেছেন। ২০১৪ সালে কাব ও আন্তর্জাতিক ফুটবল মিলে ৬১টি গোল করেন রোনালদো। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের এক মওসুমে সর্বোচ্চ (১৭) গোলের নতুন রেকর্ডও গড়েন তিনি। রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে শিরোপা জিতেন চারটি। তবে বিশ্বকাপে ছিলেন নিষ্প্রভ।

মহিলাদের বর্ষসেরা ফুটবলার নির্বাচিত হন জার্মানির নাদিম কেচলার।

পুরুষদের বর্ষসেরা গোলের ফিফা পুসকাস অ্যাওয়ার্ড জিতেছেন কলম্বিয়ার তারকা ফুটবলার জেমস রদরিগেজ।

বিশ্বকাপ জয়ী জার্মান কোচ জোয়াকিম লোর হাতেই উঠল বর্ষসেরা কোচের পুরস্কার। তিনি কোচ অব দ্য ইয়ার নির্বাচিত হন কার্লো আনচেলোত্তি ও দিয়েগো সিমিওনেকে পেছনে ফেলে। এর আগে মহিলা ফুটবলের সেরা কোচের অ্যাওয়ার্ডের জন্য নির্বাচিত হন রাল্ফ কেলারম্যান। বর্ষসেরা একাদশে ব্রাজিল বিশ্বকাপে ভালো নৈপুণ্য দেখানো ফুটবলাররা জায়গা পেলেন। গোলরক্ষক পজিশনের জন্য নির্বাচিত হয়েছেন ম্যানুয়েল নুয়ের। চার ডিফেন্ডারের মধ্যে আছেন ব্রাজিলের থিয়াগো সিলভা ও ডেভিড লুইস, স্পেনের সার্গিও রামোস ও জার্মানির বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়ক ফিলিপ লাম। বর্ষসেরা দলের তিন মিডফিল্ডার হলেন ডি মারিয়া, ইনেএস্তা ও টনি ক্রুজ। আক্রমণভাগে তিন প্রত্যাশিত ফুটবলারের তিনজনই আছেন। মেসি, রোনালদো ও রোবেনকে রাখা হয়েছে বর্ষসেরা দলের আক্রমণভাগে।