রেগে গেলেন শিমু

ব্যাগ কাঁধে হাঁটছেন মাহফুজ আহমেদ। তার সামনের বাড়ির নাম রাজ্য। এ বাড়ির সামনে রিকশা থেকে নামলেন সুমাইয়া শিমু। মাহফুজ এগিয়ে গিয়ে পাশের বাড়িটি দেখিয়ে জানতে চাইলেন- ওই বাড়িতে কেউ আছেন কিনা। জবাবে শিমু বলেন, আপনি গিয়ে দেখেন।

মাহফুজ কিছুটা অপ্রস্তুত হয়ে বলেন- অনেক ডাকাডাকি করেও কারো সাড়া পেলাম না। আপনার কাছে ওনাদের কারো ফোন নম্বর হবে? একটু রেগে গিয়ে শিমু বলেন, আপনি কি শুরু করেছেন বলেন তো? আপনি এখান থেকে যান তো। কথাটা বলেই হনহন করে হাঁটতে থাকেন এই অভিনেত্রী।
শনিবার (৩ জুন) দুপুরে নগরীর উত্তরা ৫ নম্বর সেক্টরের রাজ্য শুটিং হাউসের সামনে এ দৃশ্য দেখা যায়। এগিয়ে গেলে দেখা মেলে পরিচালক ফেরদৌস হাসানের। জানা যায়, একটি নাটকের দৃশ্যধারণের কাজ করছেন তারা।

গেট পেরিয়ে রাজ্য শুটিং হাউসের ভেতরে প্রবেশ করি। এগিয়ে যাই সাজঘরের দিকে। এখানে দেখা মেলে গুণী অভিনেতা আবুল হায়াতের। সাজঘরে তখন তিনি একাই বসে ছিলেন। এগিয়ে গিয়ে কুশল বিনিময়ের পর্ব শেষ করি। আলাপচারিতায় জানতে পারি, ‘অসামাজিক’ নামে ঈদুল ফিতরের একটি নাটকের শুটিং হচ্ছে। আর এতে তিনিও অভিনয় করছেন।
নাটকটির গল্প প্রসঙ্গে আবুল হায়াত জানান, মাহফুজ আহমেদের একটি প্রতিষ্ঠান রয়েছে। এই প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে শহরের মানুষকে সামাজিক করার চেষ্টা করছে। অসামাজিকতার কারণে মানুষ হার্টের সমস্যায় ভুগছে। পুরান ঢাকার মানুষ অনেকটা ভালো আছে। কারণ তারা সামাজিক। তারা মানুষের সঙ্গে মিশেন। পাশের বাড়ির মানুষের খবর নেয়। কিন্তু নতুন শহরের মানুষ বিচ্ছিন্ন। তারা কারো খবর রাখে না। নাটকের গল্পে শহরের মানুষকে সামাজিক করার দায়িত্বটি কাঁধে নিয়েছে মাহফুজ। আর আমি ওর কাজের সঙ্গে একাত্বতা ঘোষণা ও সহযোগিতা করি। যারা অসামাজিক তাদের বাড়ির সামনে ‘অসামাজিক’ লেখা স্টিকার লাগিয়ে দিই।

সামাজিক সচেতনতামূলক একটি গল্প নিয়ে নির্মিত হচ্ছে নাটকটি। এটি রচনা পরিচালনা করছেন ফেরদৌস হাসান। গতকাল থেকে শুটিং শুরু হয়েছে। ঈদুল ফিতরে চ্যানেল আইয়ে নাটকটি প্রচারিত হবে বলেও জানান এই প্রবীণ অভিনেতা

You Might Also Like