রুবেলের বিপক্ষে লড়বেন না হ্যাপির আইনজীবী

বিশ্বকাপ ক্রিকেটে রুবেল হোসেনের অনবদ্য নৈপূণ্যে বাংলাদেশ ইংল্যান্ডকে পরাজিত করার পর চিত্রনায়িকা নাজনীন আক্তার হ্যাপির আইনজীবী রুবেলের বিরুদ্ধে মামলায় না লড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।
রুবেলের কৃতিত্বে বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডকে হারিয়ে বাংলাদেশ কোয়ার্টার ফাইনালে ওঠার পর সু্প্িরম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট কুমার দেবুল দে এ সিদ্ধান্তের কথা জানান।
মঙ্গলবার সকালে তার সিদ্ধান্ত নেওয়ার কারণ ব্যাখ্যা করে এই আইনজীবী বলেন, ‘বেগম খালেদা জিয়া তার ছেলে মারা যাওয়ার পরও হরতাল প্রত্যাহার করেনি। কিন্তু ক্রিকেটে জয়লাভের পর হরতাল শিথিল করলেন। তাই আমিও ক্রিকেট ও দেশের প্রতি ভালবাসার জন্যই রুবেলের বিরুদ্ধে মামলা পরিচালনা না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’
এর আগে সোমবার রাতে ফেসবুক স্ট্যাটাসে নিজের বক্তব্য তুলে ধরেন কুমার দেবুল দে । তার ফেসবুক স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হলো:
No Objection Certificate (NOC)
বাংলাদেশের ক্রিকেট সমর্থকদের জ্ঞাতার্থে জানাচ্ছি যে, একজন পেশাজীবী হিসেবে হ্যাপির পক্ষে মামলা পরিচালনার দায়িত্ব নিয়েছিলাম। বাংলাদেশের এহেন সফলতায় রুবেলের বিপক্ষে মামলায় লড়ার আমার আর ইচ্ছে নেই এবং তাই হ্যাপির আইনজীবী হিসেবে এখনি নিজের নাম প্রত্যাহার করে নিলাম।
ভবিষ্যতে অত্র মামলাটি পরিচালনা করার জন্য হ্যাপির পক্ষে অন্য কোনো আইনজীবী নিয়োগ করা হলে আমার কোনো আপত্তি নেই। আর এখন থেকে আমি আর হ্যাপির আইনজীবী নই। শুভেচ্ছা বাংলাদেশ ক্রিকেট দল!!!!
ধন্যবাদান্তে- কুমার দেবুল দে, অ্যাডভোকেট, বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট।’
ধর্ষণ মামলায় নিম্ন আদালত থেকে জামিন নিয়ে বিশ্বকাপে খেলতে যান রুবেল। হ্যাপি রুবেলের জামিন বাতিলে হাইকোর্টে আবেদন করেন। এ আবেদনে আইনজীবী ছিলেন কুমার দেবুল দে। হাইকোর্টের একটি বেঞ্চে আগামী ৫ এপ্রিল এই আবেদনের ওপর শুনানি হওয়ার কথা রয়েছে।
উল্লেখ্য, গত বছরের ১৩ ডিসেম্বর বাংলাদেশের খেলোয়াড় রুবেল হোসেনের বিরুদ্ধে নারী নির্যাতনের অভিযোগে মামলা করেন চিত্রনায়িকা নাজনীন আকতার হ্যাপি।

You Might Also Like