রাহুল গান্ধীকে হত্যার চেষ্টা!

লোকসভা নির্বাচনের মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার আগে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলছিলেন কংগ্রেসের সভাপতি রাহুল গান্ধী। ওই সময় রাহুল গান্ধীর কানের কাছে একটি সবুজ আলোর বিন্দু ধরা পড়ে। সাধারণত দূর থেকে স্নাইপার বন্দুক দিয়ে কাউকে মারার চেষ্টা করা হলে এই ধরনের সবুজ আলো দেখা যায়!

কংগ্রেসের দাবি তাঁদের সভাপতিকে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে। তাও একবার না, সাতবার! গত বুধবারই উত্তর প্রদেশের আমেথি কেন্দ্রে মনোনয়নপত্র জমা দেন রাহুল গান্ধী। তাঁর আগেই তাঁর কানের কাছে ধরা পড়ল ওই সবুজ আলো।

ওই সময় ঘটনাস্থলে থাকা সাংবাদিকদের তোলা ছবিতে সেই সবুজ আলোর বিন্দু দেখা গেছে। বিষয়টি ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে চিঠি দিয়ে জানিয়েছে কংগ্রেস হাইকমান্ড।

কংগ্রেস হাইকমান্ডের চিঠিতে বলা হয়েছে, রাহুল গান্ধী যেদিন আমেথিতে মনোনয়ন জমা দেন, তার আগে তিনি সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলছিলেন। সেই সময় রাহুল গান্ধীর কানের কাছে একটি সবুজ আলোর বিন্দু ধরা পড়ে। ওই সময় ঘটনাস্থলে থাকা চিত্র সাংবাদিকদের তোলা ছবিতে সেই সবুজ আলোর বিন্দু দেখা গেছে।

ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের কংগ্রেসের অভিযোগ, রাহুল গান্ধীর নিরাপত্তায় গলদ রাখা হয়েছে। জানা যায়, একবার বা দুইবার নয়, পরপর সাতবার এই সবুজ রঙের আলোর বিন্দু রাহুল গান্ধীর গায়ে ঘোরাফেরা করতে দেখা গেছে।

ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রনালয়কে  দেওয়া এই চিঠিতে স্বাক্ষর করেছেন কংগ্রেসনেতা আহমেদ পাটেল, রণদীপ সুরজেওয়ালা এবং জয়রাম রমেশ। এই ঘটনায় উত্তরপ্রদেশের  যোগী প্রশাসনের নিরাপত্তায় ত্রুটির অভিযোগও করেছেন তাঁরা।

যদিও কংগ্রেসের এই চিঠি পাওয়ার পরেই কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয় নিরাপত্তারক্ষায় নিয়োজিত স্পেশাল প্রটেকশন গ্রুপের (এসপিজি) পরিচালকের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে  বিস্তারিত আলোচনা করে। এসপিজির দাবি,  কোনো লেজার লাইট নয় সবুজ রঙের আলোটি আসলে মোবাইলের আলো।

রাহুল গান্ধীর দাদি ভারতের প্রয়াত প্রধানমন্ত্রী  ইন্দিরা গান্ধী, বাবা রাহুল গান্ধীর হত্যার ঘটনার পর থেকে গান্ধী পরিবারকে বিশেষ নিরাপত্তা দেওয়া হয়। সর্বদা এসপিজি নিরাপত্তায় ঘোরাফেরা করেন তাঁরা।

You Might Also Like