রাশিয়ায় বিশ্বকাপ আয়োজনে ফিফা অনঢ়

ফিফা বিশ্বকাপের পরবর্তী আসর ২০১৮ সালে রাশিয়ায় আয়োজনের সিদ্ধান্তে অটল রয়েছে। ফুটবলের বিশ্ব সংস্থাটি একইসাথে জানিয়েছে ওই অঞ্চলের রাজনৈতিক অস্থিরতা নিরসনে বিশ্বকাপ বয়কটের মত ঘটনা কোন কার্যকরী সমাধান হতে পারে না।

গত সপ্তাহে মালয়েশিয়ান বিমানের একটি ফ্লাইট ইউক্রেন সীমান্তে ভূপাতিত করা নিয়ে রাশিয়াপন্থি বিচ্ছিন্নতাবাদীদের সাথে ইউক্রেন সরকারের বিরোধ প্রকট আকার ধারণ করে। এই ঘটনায় বিমানে থাকা ২৯৮ জন যাত্রী ও ক্রু প্রত্যেকেই নিহত হন। ঘটনাটি সারা বিশ্বে ব্যাপক আলোড়ন তোলে।

রাশিয়া ইউক্রেনের বিচ্ছিন্নতাবাদীদের সমর্থনের কথা অস্বীকার করেছে। কিন্তু বিমান দুর্ঘটনার পর জার্মানির বেশ কিছু আইন প্রণেতা ২০১৮ সালে অনুষ্ঠেয় বিশ্বকাপটি রাশিয়ার কাছ থেকে কেড়ে নেয়ার দাবি তোলে। ডাচ ফুটবল এসোসিয়েশন ইতিমধ্যেই রাশিয়ায় অনুষ্ঠেয় বিশ্বকাপটি বর্জনের হুমকি দিয়েছে। মালয়েশিয়ান বিমান দুর্ঘটনায় নিহতদের মধ্যে অধিকাংশই ছিলেন নেদারল্যান্ডসের নাগরিক।

এদিকে ফিফা এক বিবৃতিতে ঘোষণা দিয়েছে, ‘বিশ্ব ফুটবলের নিয়ন্ত্রণ সংস্থা হিসেবে যেহেতু ফিফা সব দেশের দায়িত্ব গুরুত্বের সাথে গ্রহণ করেছে, তাই দেশগুলোর নিরাপত্তাসহ সার্বিক বিষয়াদি নিশ্চিত করা ও সর্বাত্মক সহযোগিতার দায়িত্বও তাদের উপর বর্তায়। যে কোন ধরনের সহিংসতা ফিফা সবসময়ই এড়িয়ে চলে। একইসাথে অতীতের মতই মানুষের মধ্যে সমঝোতা, শান্তির বার্তা ছড়িয়ে দেবার কাজটুকু সবসময়ই ফিফা করে যাবে। ইতিহাস থেকে দেখা যায় যে কোন ধরনের আয়োজন বর্জন কিংবা দূরে থাকার নীতি কোন সময়ই সমস্যা সমাধানের কার্যকরী কোন পদক্ষেপ হয় না।’

ফিফা বিশ্বাস করে মানুষ ও সরকারের মধ্যে সুসংগঠিত আলোচনা দেশ ও জাতিকে একত্রিত করে তুলে। এছাড়া ফুটবলের মাধ্যমে বিশেষ করে বিশ্বকাপ আয়োজনের মাধ্যমে ফিফা সারা বিশ্বে ইতিবাচক পরিবর্তন আনতে সক্ষম হয়েছে। কিন্তু সব সমস্যা সমাধানের জন্য ফুটবলই একমাত্র নিয়ামক হতে পারে না। বিশেষ করে যারা বিশ্ব রাজনীতিতে যুক্ত। তবে বিশ্বকাপের মাধ্যমে কিছুটা হলেও বিশ্বকে সহযোগিতা করার একটি প্রয়াস পায় ফিফা। ফিফা বিশ্বাস করে রাশিয়ায় বিশ্বকাপ আয়োজনের মধ্যে দিয়ে ফিফা সেই ধরনের সহযোগিতা বিশ্বকে করতে পারবে।

এ বছরের মার্চে রাশিয়া ইউক্রেনের ক্রিমিয়াকে একটি গণভোট শেষে তাদের অংশভুক্ত করে নেয়ার পর রাশিয়ার কাছ থেকে দায়িত্ব কেড়ে নেয়ার কথা উঠেছিল। ব্ল্যাটার সেই সময়েও এটি প্রত্যাখ্যান করেন। তিনি মার্চেই এ ব্যাপারে বলেন, ‘বিশ্বকাপের বরাদ্দ দেয়া হয়ে গেছে এবং রাশিয়া ভোটে জয়ী হয়েছে এবং আমরা আমাদের কাজ নিয়ে এগিয়ে যাবো।’-বাসস

You Might Also Like