‘রাশিয়ার ওপর চাপ সৃষ্টি করে যাবে আমেরিকা’

২০১৬ সালের মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রাশিয়ার কথিত হস্তক্ষেপের কারণে মস্কোর ওপর চাপ সৃষ্টি অব্যাহত রাখবে ওয়াশিংটন। জাতিসংঘে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত নিকি হ্যালি এ সতর্কবাণী উচ্চারণ করে দাবি করেছেন, ‘নিঃসন্দেহে’ প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রাশিয়া হস্তক্ষেপ করেছে।

তিনি আরো বলেন, প্রয়োজনীয় তদন্ত শেষে ক্রেমলিনের এ পদক্ষেপের উপযুক্ত জবাব দেয়া হবে।

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন মার্কিন নির্বাচনে তার দেশের সংশ্লিষ্টতার অভিযোগ সরাসরি নাকচ করে দিয়েছেন। অন্যদিকে ওই নির্বাচনে জয়ী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পও নির্বাচনের আগে রাশিয়ার সঙ্গে গোপন যোগসাজশের অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছেন।

ট্রাম্প রাশিয়ার পক্ষ থেকে ওই নির্বাচনের পরাজিত প্রার্থী হিলারি ক্লিন্টনের ইমেইল হ্যাক হওয়ার কথা স্বীকার করলেও বলেছেন, নির্বাচনের ফলাফলের ওপর এর কোনো প্রভাব পড়েনি।

ট্রাম্প প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পর তার আমন্ত্রণে সাড়া দিয়ে সাউথ ক্যারোলিনার গভর্নরের পদ ত্যাগ করে জাতিসংঘে আমেরিকার রাষ্ট্রদূতের পদ প্রহণ করেন ৪৫ বছর বয়সি হ্যালি। তিনি সিবিএস নিউজকে দেয়া সাক্ষাৎকারে আরো বলেছেন, “আমরা চাই না আমাদের নির্বাচনে বাইরের কেউ হস্তক্ষেপ করুক। তবে আমি এ বিষয়ে নিশ্চিত যে রাশিয়া এ নির্বাচনে হস্তক্ষেপ করেছে।”

গত জানুয়ারি মাসে মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থাগুলো দাবি করে, গত বছরের নভেম্বরে অনুষ্ঠিত প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পকে বিজয়ী করার জন্য রাশিয়া কাজ করেছে। এ ছাড়া, ট্রাম্পের প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী হিলারি ক্লিন্টনের দল ডেমোক্র্যাট পার্টির পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে, মস্কোর হস্তক্ষেপের কারণেই ট্রাম্প ওই নির্বাচনে জয়ী হয়েছেন। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ও রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন এ অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

You Might Also Like