রাজস্থানকে হারিয়ে শীর্ষে মুম্বাই

মঙ্গলবার রাতে আবুধাবির শেখ জায়েদ ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আইপিএলের ২০তম ম্যাচে জমজমাট লড়াই হয়নি।

রাজস্থান রয়্যালসকে৫৭ রানের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে মুম্বাই ইন্ডিয়ানস।

এ জয়ে আইপিএলের পয়েন্ট তালিকায় আবারও শীর্ষে উঠে এলো রোহিত শর্মার দল।

৬ ম্যাচ খেলে ৮ পয়েন্ট নিয়ে রান রেটের ব্যবধানে শীর্ষে রয়েছে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। একটি ম্যাচ কম খেলে সমান পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে দিল্লি ক্যাপিটালস।

আর মঙ্গলবারের হারের ৫ ম্যাচে ৪ পয়েন্ট নিয়ে ৭ নম্বরে অবস্থান করছে রাজস্থান রয়্যালস ।

এদিন মুম্বাইয়ের বোলারদের সামনে ইংলিশ ব্যাটসম্যান জস বাটলার ছাড়া রাজস্থানের আর কেউই দাঁড়াতে পারেনি। শুধু বাটলারের ব্যাট থেকেই এসেছে ৪৪ বলে ৪ বাউন্ডারি ও ৫ ছক্কায় ৭০ রান।

এছাড়া দলের আরেক ইংলিশ তারকা জফরা আর্চারের ব্যাট থেকে এসেছে ১১ বলে ২৪ রানের ইনিংস। আর বাকি সব মুম্বাইয়ের ট্রেন্ট বোল্ট ও জাসপ্রিত বুমরার তোপে এসেছেন আর গেছেন।

জাসপ্রিত বুমরা ৪ ওভারে মাত্র ২০ রান দিয়ে ৪ উইকেট নিয়েছেন।

টস জিতে ব্যাট করতে নেমে উড়ন্ত সূচনা করে মুম্বাই। দুই ওপেনার রোহিত শর্মা আর কুইন্টন ডি কক ২৯ বলের উদ্বোধনী জুটিতে তুলেন ৪৯ রান। রোহিত- কক জুটি ভাঙেন কার্তিক ত্যাগি। ডি কক করেন ১৫ বলে ২৩ রান।

ইনিংসের দশম ওভারে দুটি উইকেট তুলে নেয় রাজস্থান। রাজস্থান লেগস্পিনার শ্রেয়াস গোপালকে তুলে মারতে গিয়ে বাউন্ডারিতে ক্যাচ হন রোহিত। ২৩ বলে ৩৫ রানে ফেরেন তিনি। পরের বলেই শূন্য রানে আউট ইশান কিষাণ।

ব্যর্থ হন ক্রুনাল পান্ডিয়াও। ১৭ বলে ১২ রান করে জোফরা আর্চারের শিকার হন তিনি।

তবে অনবদ্য ব্যাটিং করে দলের পুরো চিত্রটাই পাল্টে দেন সূর্যকুমার যাদব। ঝড়ো ব্যাটিংয়ে ৪৭ বলে গড়া তার ৭৯ রানে অপরাজিত থাকেন। তার এই হার না মানা ইনিংসে ১১টি চার আর ২টি ছক্কার মার ছিল।

হার্দিক পান্ডিয়া ১৯ বলে ৩০ রানের অপরাজিত ইনিংস খেললে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে ১৯৩ রান সংগ্রহ করে মুম্বাই।

১৯৪ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই নিয়মিত বিরতিতে উইকেট পড়তে থাকে রাজস্থানের। প্রথমে জসশ্বি জসওয়ালকে শূন্য রানে আউট করেন অসি ওপেনার বোল্ট।

৭ বলে করেন ৬ রান করে বুমরার বলে আউট হন অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ।

দলের এ মুহূর্তে সবচেয়ে বড় ভরসা সাঞ্জু স্যামসন ৩ বল খেলে আউট হন শূন্য রানে। এর পর মহিপাল লমরর ১৩ বলে করেন ১১ রান।
মুম্বাইয়ের বোলারদের বল একমাত্র চোখে দেখেছেন জস বাটলার। ৪৪ বলে ৭০ রানের ইনিংস খেলেন তিনি।

তিনি ছাড়া বাকি সবার রান – টম ক্যারন ১৫, স্রেয়াশ গোপাল ১, রাহুল তেওয়াতিয়া ৫ এবং অঙ্কিত রাজপুতের ২ রান।

শেষ দিকে আরচারের ১১ বলে ২৪ রান হারের ব্যবধান কমিয়ে আনে। ১৩৬ এই থেমে যায় রাজস্থানের ইনিংস।

ফলাফল ৫৭ রানে জয়ী মুম্বাই ইন্ডিয়ানস।

You Might Also Like