রংপুরে সন্তান হত্যায় মায়ের মৃত্যুদণ্ড

রংপুরে এক বছরের মেয়েসন্তানকে হত্যার দায়ে মায়ের মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত।

বুধবার দুপুরে অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আবু জাফর মো. কামরুজ্জামান এ রায় ঘোষণা করেন।

রায় ঘোষণার সময় একমাত্র আসামি রাহেলা খাতুন (৩০) আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

মামলার বিবরণে ও আদালত সূত্রে জানা গেছে, জেলার গঙ্গাচড়া উপজেলার গজঘন্টা ইউনিয়নের জয়দেব সরকার পাড়া গ্রামের আব্দার রহমানের মেয়ে রাহেলা খাতুন। তার সঙ্গে ২০০২ সালে বিয়ে হয় পাশের মহিপুর ইউনিয়ের চ্যাংমারী গ্রামের বাবুল মিয়ার ছেলে লাভলু মিয়ার। বিয়ের এক বছর পর তাদের কোলজুড়ে একটি মেয়েসন্তান জন্ম নেয়।

মেয়েসন্তান জন্ম নেওয়ার পর থেকে রাহেলা খাতুনকে যৌতুকের কারণে প্রায় মারধর করত স্বামী লাভলু মিয়া। তাই অতিষ্ঠ হয়ে স্বামীকে ফাঁসাতে ২০০৪ সালে ১২ সেপ্টেম্বর রাতে মেয়ে লাকি খাতুনকে গলা টিপে হত্যা করে মা রাহেলা। এর পর লাশ গুম করার জন্য বাড়ির পাশে পুকুরে ফেলে রাখে।

পরদিন পুলিশ লাশ উদ্ধার করে একটি ইউডি মামলা দায়ের করে। পরে ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পাওয়ার পর স্বামী লাভলু মিয়া বাদী হয়ে একই বছরের ১ অক্টোবর স্ত্রী রাহেলা খাতুনকে আসামি করে গঙ্গাচড়া থানায় একটি হত্যা মামলা দয়ের করেন।

৯ জনের সাক্ষ্যপ্রমাণে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণ হলে আদালত তার বিরুদ্ধে মৃত্যুদণ্ডাদেশ দেন।

রাষ্ট্রপক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেন অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর ফারুক মোহাম্মদ রেয়াজুল করিম।

You Might Also Like