যৌন হয়রানির অভিযোগ অস্বীকার করলেন বিবার

পপ তারকা জাস্টিন বিবারের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ তুলেছেন এক নারী। তবে অভিযোগ অস্বীকার করেছেন এই গায়ক।

সম্প্রতি এক নারী অভিযোগ করেন, ২০১৪ সালে বিবারের দ্বারা যৌন হয়রানির শিকার হয়েছেন তিনি। এরপর থেকেই শুরু হয় হইচই। পরবর্তী সময়ে সোশ্যাল মিডিয়া ইনফ্লুয়েন্সার কাদি বিবারের বিরুদ্ধে একই রকম অভিযোগ তোলেন।

বিষয়টি নিয়ে মাইক্রোব্লগিং সাইট টুইটারে বেশ কয়েকটি টুইট করেছেন বিবার। এর একটিতে লেখেন, ‘আমি কোনো বিষয়ে সচরাচর কথা বলি না কারণ আমার পুরো ক্যারিয়ারে প্রায়ই নানা অভিযোগের মুখোমুখি হতে হয়েছে। তবে আমার স্ত্রী ও টিমের সঙ্গে আলোচনা করে আজ এই বিষয়ে কথা বলার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

অপর এক টুইটে এই কানাডিয়ান গায়ক লেখেন, ‘গুজব তো গুজবই কিন্তু যৌন হয়রানির বিষয়টি আমি কখনোই হালকাভাবে নিই না। আমি এখনই কিছু বলতে চেয়েছিলাম কিন্তু প্রতিদিন অনেকেই এই সমস্যার সম্মুখীন হন, তাদের বিষয়টি মাথায় রেখে আমার বিবৃতি দেওয়ার আগে কিছু সত্যতা তুলে ধরতে চাই।’

অভিযোগের বিষয়ে টুইটারে বিবার লেখেন, ‘গত ২৪ ঘণ্টায় টুইটারে, ২০১৪ সালের ৯ মার্চ অস্টিন টেক্সাসের ফোর সিজন হোটেলে আমাকে জড়িয়ে যৌন হয়রানির ঘটনা ভেসে বেড়াচ্ছে। আমি বিষয়টি পরিষ্কার করতে চাই। এর কোনো সত্যতা নেই। আমি আপনাদের সামনে প্রমাণ তুলে ধরব, সেখানে ছিলামও না।’

বিবার জানান, তিনি সেখানে তার সেই সময়ের প্রেমিকা সেলেনা গোমেজের একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে গিয়েছিলেন। এ প্রসঙ্গে টুইটে তিনি লেখেন, ‘তার (অভিযোগকারী) ভাষ্যমতে, আমি আমার সেই সময়ের সহকারীর পাশে স্টেজে কিছু গান গেয়েছি এবং শ্রোতাদের চমকে দিয়েছি। এই ব্যক্তি কি জানতেন না আমি এই শোয়ে আমার সেই সময়ে প্রেমিকা সেলেনা গোমেজের সঙ্গে অংশ নিয়েছিলাম।’

টুইটের পাশাপাশি বিবার বেশকিছু সংবাদের লিংক, ছবি ও টুইটের স্ক্রিনশট প্রকাশ করেন। পরবর্তী সময়ে এক বিবৃতিতে তিনি লেখেন, ‘মার্চের ১০ তারিখে সেলেনা কাজের জন্য বেরিয়ে যায় এবং আমি ওয়েস্টিনে ছিলাম। এরপর আমার বন্ধু নিক ও জনের সঙ্গে শহর ছেড়ে যাই। রশিদে বিষয়টি স্পষ্ট উল্লেখ আছে। আবারো বলছি সেটা ফোর সিজন হোটেল ছিল না। আমরা শোয়ের কারণে কয়েকদিনের জন্য এটি বুক করেছিলাম। কিন্তু ১১ তারিখে বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা হই।’

You Might Also Like