যে চার বিবেচনায় জামিন পেলেন খালেদা

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে চারটি গ্রাউন্ডে (যুক্তিতে) জামিন দিয়েছেন আদালত।

আদালত খালেদা জিয়াকে জামিন দেওয়ার সময় চারটি আইনি যুক্তি তুলে ধরেন। সেগুলো হলো- সাজার পরিমাণ, বয়স ৭৩ বছর, শারীরিক অসুস্থতা ও অতীতে জামিনের অপব্যবহার না করা।

আদালত থেকে বেরিয়ে খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা বলেন, ‘জামিন মঞ্জুর করার সময় আদালত বলেছেন, খালেদা জিয়া একজন বয়ষ্ক নারী। তিনি শারীরিক অসুস্থতায় ভুগছেন। ইতোপূর্বে এই মামলায় তিনি নিম্ন আদালতে জামিনে থেকে বিচারিক কার্যক্রমে অংশ নিয়েছেন। তিনি জামিনের কোনো অপব্যহার করেননি। এ কারণেই জামিন দেওয়া হয়েছে।’

ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেন, ‘এই জামিন আদেশের ফলে কারাগার থেকে মুক্তি পেতে খালেদা জিয়ার আর কোনো আইনি বাধা নেই।’

অপরদিকে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম ও দুদকের আইনজীবী খুরশিদ আলম খান বলেছেন, ‘হাইকোর্টের জামিন আদেশের বিরুদ্ধে আগামীকালই চেম্বার আদালতে আবেদন করা হবে।’

এর আগে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে চার মাসের অন্তর্বর্তীকালীন জামিন দেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে এই সময়ের মধ্যে এই মামলার আপিলের পেপারবুক প্রস্তুত করার কথা বলেছেন আদালত।

সোমবার বেলা আড়াইটার দিকে বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি সহিদুল করিমের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ খালেদা জিয়ার জামিন মঞ্জুর করে আদেশ দেন।

You Might Also Like