যেভাবে ভারতের কাছে পরাজিত হলো চীন

লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় সাহসিকতার সাথে লড়াই করেছে ইন্দো-তিবেতান বর্ডার পুলিশ টিবিপি। প্রায় ২০ ঘণ্টা ধরে চীনা সৈনিকদের সঙ্গে সমানে লড়াই চালিয়েছেন ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর সেনরা। তাদের সঙ্গে না পেরে শেষমেশ পরাজয় বরণ করে নেন চীন।

শুক্রবার প্রথম গালওয়ান সংঘর্ষ নিয়ে মুখ খোলে টিবিপি। এক বিবৃতিতে বাহিনীটি জানিয়েছে, পূর্ব লাদাখে ভারতীয় জমিতে চীনা হানাদারদের প্রবেশ করতে দেয়নি তাদের সেনারা। গালওয়ান উপত্যকায় পরিস্থিতি এমন জায়গায় পৌঁছে গিয়েছিল যে একনাগাড়ে প্রায় ২০ ঘণ্টা পর্যন্ত লড়াই করতে হয়েছে জওয়ানদের। পাহাড়ি অঞ্চলে লড়াইয়ের প্রশিক্ষণ ও অভিজ্ঞতার জেরে ভারতীয় আধাসামরিক বাহিনীতির কাছে রীতিমতো বেকায়দায় পড়েছিল চীনা সৈনিকরা। শুধু তাই নয়, ভারতীয় ফৌজের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় সংঘর্ষস্থল থেকে আহত সেনাদেরও উদ্ধার করেন টিবিপির সদস্যরা। এমন সাহসিকতা ও চীনা ফৌজের মামলা রুখে দেওয়ার জন্য ২৯৪ জন সেনাকে সম্মানিত করা হয়েছে।

প্রায় ৯০ হাজার জওয়ান নিয়ে গঠিত টিবিপি। মূলত চীনের সঙ্গে সাড়ে তিন হাজার লম্বা প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখার সুরক্ষায় মোতায়েন থাকে। লাদাখের কারাকোরাম গিরিপথ থেকে শুরু করে অরুণাচল প্রদেশের জাচেপ লা পর্যন্ত সীমান্তের নজরদারি করে ভারতের এই আধা সামরিক বাহিনীটি। ফলে পাহাড়ি অঞ্চলে লড়াই ও পালটা হামলায় রীতিমতো অভিজ্ঞ টিবিপি জওয়ানরা। তাই পাথর ও রড নিয়ে আচমকা হামলা চালালেও সুবিধা করে উঠতে পারেনি চীনা ফৌজ।

ভারত-চীন সংঘর্ষের ইতিহাসে অন্যতম রক্তাক্ত অধ্যায় গালওয়ান উপত্যকা । গত জুন মাসের ১৫ তারিখ লালফৌজের সঙ্গে সংঘর্ষে এখানেই শহীদ হয়েছেন ২০ জন ভারতীয় জওয়ান।

You Might Also Like