‘যুক্তরাষ্ট্র প্রয়োজনে জঙ্গিগোষ্ঠী বানায়’

নিজেদের প্রয়োজনে যুক্তরাষ্ট্র আইএস ও জেএমবির মতো জঙ্গিগোষ্ঠী বানিয়ে বিশ্বে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করছে বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান।

রোববার রংপুরে এক অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, “খোদ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে মৃত্যুদণ্ড বহাল থাকলেও তারা আমাদের দেশের মৃত্যুদণ্ড নিয়ে কথা বলছে।

“আমাদের দেশে যখন দুজন যুদ্ধাপরাধীর মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হলো তখন তারা তার বিরোধিতা করে মাঠে নামল। তখন তাদের কুৎসিত চেহারা ফুটে ওঠে।”

তিনি দেশের জনগণের প্রতি এদের বিরুদ্ধে সোচ্ছার হওয়ার আহ্বান জানান।

আসন্ন পৌর নির্বাচন নিয়ে মানবাধিকার কমিশন চেয়ারম্যান বলেন, জনগণের ভোট দেওয়ার অধিকার নিশ্চিত করার দায়িত্ব রাষ্ট্রের।

“এতে কোনো ধরনের ব্যত্যয় ঘটলে গণতন্ত্রের প্রতি মানুষের আস্থা কমে যেতে পারে, যেটা কখনোই জাতির জন্য শুভবার্তা বয়ে আনবে না।

“আমরা আশা করব নির্বাচন কমিশন নির্বাচন পরিচালনার জন্য যাদের উপর যে ধরণের দায়িত্ব অর্পণ করেছে তারা তা নিষ্ঠা ও সততার সঙ্গে পালন করে দেশের গণতন্ত্র ও মানবাধিকার অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখবেন।”

আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর বিরুদ্ধে গুমের অভিযোগের বিষয়ে তিনি বলেন, এতে মানবাধিকার চরমভাবে লংঘন হচ্ছে।

“কাউকে আটক বা গ্রেপ্তারের পর ২৪ ঘণ্টার মধ্যে আদালতে সোপর্দ করার কথা থাকলেও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তা করছে না।”

তিনি অভিযোগ করেন, ধরে নিয়ে গেল রোববার। সোমবার তাকে আদালতে হাজির করার কথা থাকলেও সাতদিন পর বলা হচ্ছে তাকে আগের দিন গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

এতে মানবাধিকার যেমন লংঘিত হচ্ছে তেমনি মানুষ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর প্রতি আস্থা হারিয়ে ফেলছে, বলেন তিনি।

রংপুর নগরীর বেগম রোকেয়া মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত বিভাগীয় পর্যায়ে মানবাধিকার কর্মপরিকল্পনা প্রণয়ন বিষয়ক কর্মশালায় সভাপতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মিজানুর রহমান।

অনুষ্ঠানে বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য এ কে এম নূর উন নবী, জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের সচিব আমজাদ হোসেন খান, রংপুরের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার কাজী হাসান আহমেদ, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট প্রিয়সিন্ধু তালুকদার বক্তব্য দেন।

You Might Also Like