ময়ূর-২ লঞ্চের মালিক রিমান্ড শেষে কারাগারে

বুড়িগঙ্গায় লঞ্চডুবির মামলায় ময়ূর-২ লঞ্চের মালিক মোসাদ্দেক হানিফ সোয়াদকে রিমান্ড শেষে কারাগারে পাঠিনোর আদেশ দেন আদালত। রোববার (১২ জুলাই) ঢাকার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শাহজাদী তাহমিদা এই আদেশ দেন।

এর আগে, ৩ দিনের রিমান্ড শেষে সোয়াদকে আদালতে হাজির করে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন তদন্ত কর্মকর্তা নৌ-পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) শহিদুল আলম।

প্রসঙ্গত, গত বুধবার (৮ জুলাই) দিবাগত রাত ৩টার দিকে কলাবাগান থানা এলাকার সোবহানবাগ থেকে মোসাদ্দেক হানিফ সোয়াদকে গ্রেপ্তার করা হয়। এরপর দিন (৯ জুলাই) তার ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।

এছাড়া, গত ৭ জুলাই লঞ্চের সুপারভাইজার আব্দুস সালামের ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। ৯ জুলাই রিমান্ড শেষে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

উল্লেখ‌্য, গত ২৯ জুন মুন্সীগঞ্জ থেকে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে আসে মর্নিং বার্ড নামের একটি লঞ্চ। এরপর সদরঘাটে ভেড়ানোর আগে চাঁদপুরগামী ময়ূর-২ লঞ্চের ধাক্কায় অর্ধশতাধিক যাত্রীসহ ডুবে যায় মর্নিং বার্ড। এর মধ‌্যে ৩৪ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়।

এই ঘটনায় ৩০ জুন রাতে নৌ পুলিশের সদরঘাট থানার এসআই মোহাম্মদ শামসুল বাদী হয়ে অবহেলাজনিত হত্যার অভিযোগ এনে ময়ূর-২ লঞ্চের মালিকসহ ৭ জনের বিরুদ্ধে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেন।

মামলার আসামিরা হলেন—এমভি ময়ূর-২-এর মালিক মোসাদ্দেক হানিফ সোয়াদ (৩৩), মাস্টার আবুল বাশার মোল্লা (৬৫), জাকির হোসেন (৩৯), ইঞ্জিন চালক শিপন হাওলাদার (৪৫), চালক শাকিল হোসেন (২৮), সুকানি নাসির মৃধা (৪০) ও সুকানি হৃদয় (২৪)।

You Might Also Like