মেয়ে বিয়ে না দেয়ায় গোটা পরিবারকে খুন

ইরাকের এক সুন্দরী বালিকাকে মনে ধরেছিল ইসলামিক স্টেট (আইএস)গোষ্ঠীর এক জঙ্গির। যতারীতি বিয়ের প্রস্তাবও পাঠিয়েছিলেন ওই সদস্য। কিন্তু ওই প্রস্তাবে রাজি হননি মেয়ের বাব-মা। এই তুচ্ছ কারণে ওই পরিবারের পাঁচ জনকে নির্মমভাবে গলা কেটে হত্যা করেছে আইএস। পরে পছন্দের পাত্রীকে অপহরণ করে নিয়ে গেছে জঙ্গিরা। ইরাকের মানবাধিকার মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে এ খবর জানিয়ে আল আরাবিযা সংবাদ মাধ্যম।

রোববার ওই মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বাবা, মা এবং তাদের তিন ছেলে মেয়ে হত্যা করার পর ১৪ বছরের কিশোরীকে তুলে নিয়ে গেছে ইসলামিক স্টেটের সদস্যরা। তবে মেয়েটিকে তারা কোথায় নিয়ে গেছে সে ব্যাপারে কোনো তথ্য দিতে পারেনি ওই মন্ত্রণালয়।

আইএসের কুখ্যাত যোদ্ধা জামাল সাদ্দাম (আবু আবদুল্লাহ নামে বেশি পরিচিত) মেয়েটিকে বিয়ে করার প্রস্তাব দিয়েছিলেন। কিন্তু জঙ্গির কাছে মেয়ে বিয়ে দেয়ার ওই প্রস্তাব ফিরিয়ে দেয় মেয়েটির পরিবার। এ ঘটনায় ক্ষেপে গিয়ে গোটা পরিবারকেই শেষ করে দেয় জঙ্গিরা। কিন্তু তাদেরকে কোথায় হত্যা করা হয়েছে এ বিষয়ে বিবৃতিতে কিছু উল্লেখ করা হয়নি। এ ঘটনাকে ‘ভয়াবহ অপরাধ’ বলে উল্লেখ করেছে ইরাকের মানবাধিকার মন্ত্রণালয়।

প্রসঙ্গত, চলতি বছরের গোড়ার দিকে আল কায়দার সঙ্গে সম্পকৃত আইএস ইরাক ও সিরিয়ার উল্লেখযোগ্য অংশ দখল করে তথাকথিত ‘খিলাফত’ ঘোষণা দেয। এই গোষ্ঠীটিকে পরাজিত করতে তাদের বিরুদ্ধে গত সেপ্টেম্বর মাস থেকে বিমান হামলা চালাচ্ছে মার্কিন নেতৃত্বাধীন জোট।

You Might Also Like