মেসি-রোনালদোকেও হারিয়ে দিলেন ধোনি!

মেসি না রোনালদোএ বিতর্কের শেষ নেই। তবে একটা জায়গায় ‘সমস্যা’টির মীমাংসা টেনে দিচ্ছেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। দুজনের চেয়ে বিশেষ একটি ক্ষেত্রে ধোনিই নাকি এগিয়ে! অন্তত বিপণন মূল্যকে জনপ্রিয়তার মাপকাঠি ধরলে সেটাই মনে হচ্ছে। লন্ডন স্কুল অব মার্কেটিং বিশ্বের বিপণন যোগ্য ক্রীড়াবিদদের একটি তালিকা বানিয়েছে। ভারত অধিনায়ক সেখানে নবম স্থানে অবস্থান করছেন। ধোনির চেয়ে পিছিয়ে আছেন মেসি-রোনালদো!
শুধু মেসি-রোনালদো নয়; ধোনি সবচেয়ে বিপণন যোগ্য খেলোয়াড়ের তালিকায় বাস্কেটবল তারকা কোবি ব্রায়ান্ট কিংবা গতিদানব উসাইন বোল্টকেও পেছনে ফেলেছেন। তালিকার শীর্ষে আছেন ১৭টি গ্র্যান্ড স্লামজয়ী রজার ফেদেরার। দুইয়ে এখনো আছেন গলফ কিংবদন্তি টাইগার উডস। শীর্ষ দশে আছেন নোভাক জোকোভিচ, ফিল মিকেলসন, লেব্রন জেমস। নয়ে থাকা ধোনির পরেই আছেন রোনালদো। রিয়াল তারকা শীর্ষ দশে জায়গা পেলেও মেসির অবস্থান ১৩-তে। আরেক বার্সা তারকা নেইমার আছেন তালিকায় ১৫তম স্থানে।
ক্রীড়াবিদদের বার্ষিক আয়, পৃষ্ঠপোষকদের কাছ থেকে প্রাপ্ত অর্থ, মিডিয়ায় তাঁদের প্রভাব, সাধারণ মানুষদের কাছে গ্রহণযোগ্যতা ও জনপ্রিয়তা—সব মিলিয়ে ক্রীড়া তারকাদের ‘ব্র্যান্ড ভেল্যু’ নির্ধারণ করেছে লন্ডন স্কুল অব মার্কেটিং। সোয়া শ কোটির দেশ ভারতের ক্রিকেট উন্মাদনাই ধোনিকে এগিয়ে রেখেছে। ২০ জনের এই তালিকায় সবচেয়ে বেশি ৭ জন জায়গা করে নিয়েছেন টেনিস থেকে। বাস্কেটবলের ৪ জন, ফুটবলার আর গলফার আছেন ৩ জন করে। ধোনি ছাড়া জায়গা হয়নি অন্য কোনো ক্রিকেটারের।
ফোর্বস ম্যাগাজিনের শীর্ষ ১০০ ক্রীড়াবিদদের তালিকাতেও নিয়মিতই এখন জায়গা পাচ্ছেন ধোনি। ভারতের ওয়ানডে অধিনায়কের বার্ষিক আয়ের পরিমাণ ৩ কোটি ১০ লাখ ডলার। এর সিংহভাগই ধোনি আয় করেন পণ্যের দূতিয়ালি করে। যে অঙ্কটি ২ কোটি ৭০ লাখ ডলার।

You Might Also Like