Uncategorized

মৃত পিয়াস করিমকেও সহ্য করতে পারছে না সরকার : রিজভী

বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব এডভোকেট রুহুল কবির রিজভী আহমেদ বলেছেন, অবৈধ সরকার পিয়াস করিমের অস্তিত্ব কখনোই তার জীবদ্দশায় যেমন সহ্য করতে পারেনি, তেমনি মৃত্যুর পরেও সহ্য করতে পারছে না। সেজন্যই পৈত্রিক সম্পত্তির মতো শহীদ মিনারকে দখলে রাখতে চাচ্ছে তারা।

আজ বুধবার দুপুরে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে রিজভী এসব মন্তব্য করেন। রিজভী আহমেদের মৃত্যুতে দলটি আজ দেশব্যাপী শোক দিবস পালন করছে।

রিজভী আহমেদ বলেন, দেশের বিশিষ্ট সমাজবিজ্ঞানী, রাজনৈতিক বিশ্লেষক মানুষের হারানো গণতন্ত্রের পক্ষে উচ্চকিত ড. পিয়াস করিমকে সর্বসাধারণের শ্রদ্ধা জানানোর জন্য তার মরদেহ শহীদ মিনারে নিয়ে যেতে বাধা দেয়া হবে বলে হুংকার দিয়েছে মহাজোটের অংশীদারদের কয়েকটি ছাত্র সংগঠন।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, এটি মূলত সরকারের শীর্ষ নেতৃত্বেরই ইশারা। কারণ পিয়াস করিমের সাহস, যুক্তি এবং বক্তব্যের শাণিত উচ্চারণে অবৈধ সরকার বিব্রতবোধ করতো। আর এই কারণেই মরহুম ড. পিয়াস করিমকে ভয় ও হুমকি দেখানো সত্ত্বেও তিনি অক্ষয় উৎসাহে ভিন্নমতের যুক্তিনিষ্ঠ উচ্চারণে মতামত ব্যক্ত করে গেছেন।

বিএনপির এই নেতা বলেন, ড. পিয়াস করিম গণতন্ত্র, মানবমুক্তি, প্রগতি, সামাজিক সাম্য এবং চিন্তার বহুমাত্রিকতাকে লালন করে গেছেন বন্য প্রতিহিংসার মুখেও।

রিজভী বলেন, দিন দিন দেশব্যাপী ভয়ংকর নৈরাজ্য ঘনীভূত হচ্ছে। আর এর জন্য একমাত্র দায়ী এই ভোটারবিহীন অবৈধ মহাজোটের সরকার। এরা দেশীয় অর্থনীতি, বিচার বিভাগ, জনপ্রশাসন, আইনের প্রকৃত শাসন এবং গণমাধ্যমের স্বাধীনতাকে ধ্বংস করে এক ক্রদ্ধু হিংস্রতায় বিরোধী দলকে নিশ্চিহ্ন করার সব বর্বর পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে। এর উদ্দেশ্য শুধু বিরোধী দলকেই পর্যুদস্ত করা নয়, এরা গোটা দেশেরই মেরুদণ্ড ভেঙে ফেলতে চাচ্ছে।

তিনি সরকারে এহেন কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে দেশের সর্বস্তরের মানুষকে সোচ্ছার হওয়ার আহ্বারন জানান।