মুঠোফোনে প্রেম করে অপহরণ, তিন নারীসহ গ্রেপ্তার ৫

মুঠোফোনে ছেলেদের সঙ্গে কথা বলে প্রেমের ফাঁদ ফেলা হয়। এরপর দেখার করার কথা বলে অপহরণ করা হয় তাঁদের। সম্প্রতি নারায়ণগঞ্জের কয়েকজন যুবক অপহরণের শিকার হয়ে মোটা অঙ্কের মুক্তিপণ দিয়ে রক্ষা পেয়েছেন। এমন অভিযোগের ভিত্তিতে তিন নারীসহ পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।
আজ শনিবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জের পুলিশ প্রধান খন্দকার মহিদ উদ্দিন তাঁর সভাকক্ষে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান।
পুলিশ সুপার জানান, গত জুলাই মাসের বিভিন্ন সময় জেলার সোনারগাঁও উপজেলার জাইদেরগাঁও এলাকার তরিকুল ইসলাম, মহেসর্দী এলাকার ইমরান হোসেন ও কাঁচপুর এলাকার সুজন কথিত প্রেমিকাদের মোবাইল থেকে ফোন পেয়ে তাঁদের দেওয়া ঠিকানায় গেলে অপহরণের শিকার হন। তাঁদের আটকে রেখে স্বজনদের কাছ থেকে বিকাশের মাধ্যমে মুক্তিপণ আদায় করা হয়। এই ঘটনাগুলো পুলিশের নজরে এলে গতকাল শুক্রবার সকাল থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত কুমিল্লা, লক্ষ্মীপুর ও নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন জায়গা থেকে প্রতারক চক্রের তিন নারী ও দুই যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়।
এঁদের মধ্যে নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার ভূঁইঘর এলাকা থেকে নাজমা বেগম (৩৫) ও আঁখি আক্তার (২২), কুমিল্লার লাকসাম উপজেলার মেহেদীর বাড়ি থেকে পারুল (২০), একই উপজেলার ইশাপুর থেকে মোবারক ও লক্ষ্মীপুর জেলার কিতারামপুর এলাকা থেকে মো. হাসানকে (২৫) আটক করা হয়।
পুলিশ সুপার আরো জানান, যুবকদের আটকে নারীর সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায় ছবি তুলে ইন্টারনেটে দেওয়ার ভয়ও দেখিয়ে থাকে এই চক্রটি। আর মুঠোফোনের সেট ও সিমকার্ড একবারের বেশি ব্যবহার করে না এই চক্রটি। তারা ইন্টারনেটে উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহারে পারদর্শী।

You Might Also Like